৯ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘সুপ্রিম কোর্টে ক্ষমা চাইলে বিবেকের অবমাননা হবে’, নিজের মন্তব্যে অনড় প্রশান্ত ভূষণ

Published by: Paramita Paul |    Posted: August 24, 2020 4:32 pm|    Updated: August 24, 2020 4:39 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নিজের অবস্থানে অনড়। আদালত অবমাননার জন্য নিঃস্বার্থ ক্ষমা চাইবেন না আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ (Prashant Bhushan)। সোমবার সাফ এ কথা জানিয়ে দিলেন আইনজীবী তথা সমাজকর্মী প্রশান্ত ভূষণ। সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদের (S A Bobde) বিরুদ্ধে অবমাননাকর মন্তব্য টুইট করেছিলেন তিনি। এদিন এ প্রসঙ্গে প্রশান্ত ভূষণ বলেন, “আদালতের প্রতি করা মন্তব্য ফেরালে নিজের বিবেকের অবমাননা করা হবে।”

কিছু দিন আগে দেশের বিচারব্যবস্থা এবং সুপ্রিম কোর্টের চার বিচারপতিকে নিয়ে টুইট করে বিতর্কে জড়ান প্রাক্তন আপ নেতা। নিজের টুইটে প্রশান্ত ভূষণ (Prashant Bhushan) লেখেন, ইতিহাসবিদরা যখন গত ৬ বছরের দিকে পিছনে ফিরে তাকাবেন, তখন দেখতে পাবেন, জরুরি অবস্থা না হওয়া সত্বেও কীভাবে দেশের বিচারব্যবস্থা ধ্বংস করা হয়েছে। আর এই কাজে শেষ চারজন প্রধান বিচারপতির ভূমিকাও আলাদা করে বর্ণনা করতে পারবেন তাঁরা। আরেক টুইটে সরাসরি প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদের  হার্লে ডেভিডসন বাইক চাপা নিয়ে আপত্তি তোলেন এই বর্ষীয়ান আইনজীবী। প্রধান বিচারপতিকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন,”দেশের এই সংকটকালে প্রধান বিচারপতি মাস্ক এবং হেলমেট ছাড়াই বাইকে চড়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। অথচ লকডাউনে নাগরিকরা বিচার পাচ্ছেন না।” প্রশান্তের এই দুটি টুইটকেই আদালত অবমাননা (Contempt of Court) বলে গণ্য করে সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court)। প্রশান্তের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়। 

[আরও পড়ুন : এখনও গভীর কোমায় আচ্ছন্ন প্রণব মুখোপাধ্যায়, চলছে শ্বাসকষ্টের চিকিৎসা, জানাল হাসপাতাল]

শেষ শুনানিতে বিচারপতি অরুণ মিশ্রের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বেঞ্চ ধমকের সুরে প্রশান্ত ভূষণকে বলেছিলেন, “এজলাসে অন্তত আইনি মাথাটা ব্যবহার করবেন না।” এই শুনানির শেষে প্রশান্ত ভূষণকে মন্তব্য ফেরাতে তিনদিন সময় দিয়েছিল আদালত। কিন্তু নিজের মত বদলের পথে হাঁটতে নারাজ তিনি। এ প্রসঙ্গে এদিন প্রশান্ত ভূষণ বলেন, “আমি মাই লর্ডের সময় নষ্ট করতে চাই না। আইনজীবীর সঙ্গে কথা বলেই পরবর্তী পদক্ষেপ করব।” নিজের করা মন্তব্য প্রসঙ্গে প্রশান্ত ভূষণ বলেন, “গণতন্ত্রের সুরক্ষা মর্যাদা রক্ষায় এই মন্তব্য। এটা আমার সর্বসমক্ষে সমালোচনা ছিল। ন্যায়ের রক্ষক হিসেবে এই কাজ করেছি।” 

[আরও পড়ুন : বিক্ষুব্ধ নেতারা বিজেপি ঘনিষ্ঠ, রাহুলের মন্তব্যে তোলপাড় কংগ্রেস, ক্ষুব্ধ আজাদ-সিব্বল]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement