BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৬ মে ২০২০ 

Advertisement

মুক্তি চেয়ে কাতর আবেদন লক-আপে বন্দি পরিযায়ী শ্রমিকদের ভিডিও শেয়ার পিকের

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: March 30, 2020 4:38 pm|    Updated: March 30, 2020 5:09 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিহারের পরিযায়ী শ্রমিকদের এক হৃদয় বিদারক ভিডিও তুলে ধরলেন ভোট কৌশলী প্রশান্ত কিশোর। বিহারে এই শ্রমিকদের সঙ্গে কেমন আচরণ করা হচ্ছে সেই ভিডিও তুলে ধরে নিজের টুইটে তা পোস্ট করেন। সেই ভিডিওতে দেখা যায়, কয়েকজন শ্রমিক বন্দি রয়েছেন লক আপে। তাঁরা কাঁদছেন, মুক্তির আবেদন জানিয়ে তারা মিনতি করছেন।

লকডাউন জারি হওয়ার পর থেকে দেশজুড়ে সবথেকে বেশি সমস্যায় পড়েছেন পরিযায়ী শ্রমিকেরা। কেউ বাড়ি ফিরতে পেরেছেন কেউ বা পারেননি। কেউ আবার লকডাউনের সময়ে বাড়ি ফিরতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। আবার রবিবার থেকে রাজ্যের সীমান্ত বন্ধ করে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়। কিন্তু প্রতিটি রাজ্যে আটকে পরা পরিযায়ী শ্রমিকদের দুর্দশার এক ভিডিও নিজে পোস্ট করেন নির্বাচনী কুশলী প্রশান্ত কিশোর। সেই পোস্টে তিনি লিখেছেন,”মানুষকে করোনাভাইরাস মহামারী থেকে রক্ষার নাম করে যা হচ্ছে, তা এককথায় ভয়াবহ। দরিদ্র শ্রমিকরা দেশের নানা প্রান্তে কাজ করেন। সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং ও কোয়ারান্টাইনের নাম করে নীতীশ কুমার সরকার তাঁদের বিপদে ফেলেছেন।”টুইটারে পোস্ট করা ভিডিওটি তোলা হয়েছে বিহারের সিওয়ান জেলায়। এই স্থানটি পটনা থেকে ১৩০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। ভিডিওতে এক ব্যক্তি মুখে রুমাল চাপা দিয়ে ভিডিওতে বলছেন,”সকাল থেকে আমাদের এইভাবে আটকে রেখেছে। কেবলই বলছে, বাস আসবে। তোমাদের নিয়ে যাবে। কিন্তু কখন বাস আসবে জানি না।”

এক সাংবাদিকের কাছে মিনতি করে ওই শ্রমিক বলছেন,”দয়া করে আমাদের এখান থেকে বেরোতে সাহায্য করুন। আমরা কিছুই চাই না, আমাদের যেতে দিন।”সিওয়ানের পুলিশ সুপার অভিনব কুমার বলেন,”পরিযায়ী শ্রমিকদের ইচ্ছামতো ঘোরাফেরা করতে দেওয়া সম্ভব নয়। তাদের প্রত্যেকের সম্পর্কে আমরা খোঁজখবর নিচ্ছি। তাঁদের মেডিক্যাল স্ক্রিনিং করা হচ্ছে। খেতেও দেওয়া হচ্ছে।”

[আরও পড়ুন:পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য কী পদক্ষেপ কেন্দ্রের, বিস্তারিত রিপোর্ট চাইল সুপ্রিম কোর্ট]

করোনা সংক্রমণ কমাতে লকডাউন ঘোষণা হওয়ার পর দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে বারবারই উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর। বিহারের মুখ্যমন্ত্রীকে নিজের রাজ্যের শ্রমিকদের ফিরিয়ে আনার যথাযথ ব্যবস্থা করারও আবেদন করেন তিনি। ঠিক তার পরেই এই ভিডিও পোস্ট করায় চাঞ্চল্য ছড়ায় নেটিজেনদের মধ্যে বিহারের মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন অনেকে।

[আরও পড়ুন:কঠিন সময়ে সামাজিক দূরত্বের পাঠ, ওমর আবদুল্লার প্রশংসায় পঞ্চমুখ মোদি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement