BREAKING NEWS

৩ বৈশাখ  ১৪২৮  শনিবার ১৭ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

যৌন নির্যাতিতা ও অভিযুক্তকে একসঙ্গে বেঁধে ঘোরাল গ্রামবাসীরা, উঠল ‘ভারত মাতা কি জয়’ স্লোগান

Published by: Paramita Paul |    Posted: March 29, 2021 12:56 pm|    Updated: March 29, 2021 1:11 pm

An Images

প্রতীকী।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কখনও যৌন নির্যাতনের পর বিবস্ত্র করে গোটা গ্রাম ঘোরানো হয়েছে। আবার কখনও অভিযুক্তের সঙ্গে নির্যাতিতার বিয়ের নিদান দিয়েছে খাপ পঞ্চায়েত। দেশের বিভিন্ন প্রান্তের এ ধরনের নৃশংস ঘটনায় শিউরে উঠেছে গোটা দেশ। ফের এক নির্যাতিতার সঙ্গে অমানবিক আচরণের ঘটনা সামনে এল। 

যৌন নির্যাতিতাকে অভিযুক্তের সঙ্গে একই দড়িতে বেঁধে ঘোরানো হল গোটা গ্রাম। পাশ থেকে উঠল ‘ভারত মাতা কি জয়’ স্লোগান। এর আগে অবশ্য দু’জনকেই বেধড়ক মারধর করেছিলেন গ্রামবাসীরা। এমনকী, নির্যাতিতার পরিবারের সদস্যরাও সায় দিয়েছিলেন এই কাজে। বিজেপি-শাসিত মধ্যপ্রদেশের (MadhyaPradesh) এই ঘটনার নৃশংসতায় শিউরে উঠেছে গোটা দেশ। 

[আরও পড়ুন: অসুস্থ শরদ পওয়ার, অস্ত্রোপচারের জন্য ভরতি হবেন হাসপাতালে]

মধ্যপ্রদেশের রাজধানী ভোপাল থেকে ৪০০ কিলোমিটার দূরে আলিরাজপুর এলাকায় এক আদিবাসী অধ্যুষিত গ্রামে ঘটনাটি ঘটে। ১৬ বছরের এক নাবালিকাকে ধর্ষণ করা হয়। অভিযুক্ত একুশ বছরের এক যুবক। এর পর রবিবার ওই নির্যাতিতা ও অভিযুক্তকে কষে দড়ি দিয়ে বেঁধে গোটা গ্রাম ঘোরানো হয়। অভিযোগ, তার আগে দু’জনকেই বেধড়ক মারধর করা হয়। এই ঘটনায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে কাঠগড়ায় নির্যাতিতার পরিবার-সহ গ্রামবাসীদের একাংশ।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন স্থানীয় পুলিশকর্মীরা। নির্যাতিতাকে উদ্ধার করা হয়। ইতিমধ্যে পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে। পুলিশ আধিকারিক দিলীপ সিং বিলওয়াল জানান, এই ঘটনায় দু’টি মামলা রুজু করা হয়েছে। প্রথম মামলাটি একুশ বছরের অভিযুক্তের বিরুদ্ধে রুজু করা হয়েছে। দ্বিতীয়টি, ওই নির্যাতিতার সঙ্গে অমানবিক ব্যবহারের বিরুদ্ধে। ইতিমধ্যে এই ঘটনায় ছ’জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কিন্তু মধ্যপ্রদেশের এই নৃশংসতায় চমকে উঠেছে গোটা দেশ। 

[আরও পড়ুন: দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়াল ১ কোটি ২০ লক্ষের গণ্ডি, একদিনে মৃত ২৯১]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement