৩০ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

উত্তরপ্রদেশ পুলিশের ‘রোষে পড়ে’ গ্রেপ্তার সাংবাদিককে মুক্তির নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: June 11, 2019 1:00 pm|    Updated: June 11, 2019 4:46 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যোগী আদিত্যনাথ সম্পর্কে আপত্তিকর ভিডিও শেয়ার করে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন। অবশেষে মুক্তি পাচ্ছেন সাংবাদিক প্রশান্ত কানোজিয়া। তাঁকে দ্রুত মুক্তি দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে সর্বোচ্চ আদালত। শীর্ষ আদালতে স্বামীর মুক্তির দাবিতে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন প্রশান্তের স্ত্রী। তাঁর মামলার ভিত্তিতেও সর্বোচ্চ আদালত উত্তরপ্রদেশ প্রশাসনকে সাফ জানিয়ে দিয়েছে, প্রশান্তকে যত দ্রুত সম্ভব মুক্তি দিতে হবে। সেই সঙ্গে উত্তরপ্রদেশ সরকারের ভূমিকার তিরস্কারও করেছে সর্বোচ্চ আদালত।

[আরও পড়ুন: রাজ্যের পরিস্থিতি নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে রিপোর্ট রাজ্যপালের, বৈঠক প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেও]

দিন কয়েক আগেই মুখ্যমন্ত্রী যোগীর বিরুদ্ধে আপত্তিকর ভিডিও পোস্টের অভিযোগে প্রশান্তকে গ্রেপ্তার করে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। প্রশান্তের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয় লখনউয়ের হজরতগঞ্জ থানায়। প্রশান্তের টুইটার প্রোফাইল থেকে জানা গিয়েছে, কদিন আগে ওই যুবক ফেসবুকে একটি ভিডিও পোস্ট করেন। যাতে দেখা যাচ্ছে, এক মহিলা উত্তরপ্রদেশের সচিবালয়ের সামনে দাঁড়িয়ে বারবার মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে বিয়ের প্রস্তাব দিচ্ছে। এবং মুখ্যমন্ত্রীর তাঁর সঙ্গে সম্পর্ক আছে বলেও দাবি করছেন। ভিডিওটি পোস্ট হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ভাইরাল হয়ে যায়।

[আরও পড়ুন: সচিবদের সঙ্গে বৈঠক, জীবন আরও সহজ করার বার্তা মোদির]

এই ঘটনার পরই গ্রেপ্তার করা হয় প্রশান্তকে। যা নিয়ে রীতিমতো শোরগোল পড়ে যায় জাতীয় রাজনীতিতে। বিরোধীরা তীব্র আক্রমণ শানায় বিজেপিকে। যোগী আদিত্যনাথের এই কাজকে বোকামি বলে মন্তব্য করেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীও। স্বামীর মুক্তির দাবিতে শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হন প্রশান্তের স্ত্রী। এদিন তাঁর মামলার ভিত্তিতে উত্তরপ্রদেশ সরকারকে তিরস্কার করে বলে, “এবার একটু মহানুভবতা দেখান এবং প্রশান্তকে মুক্তি দিন। স্বাধীনতা প্রত্যেক নাগরিকের পবিত্র অধিকার, এটা নিয়ে আপোশ করা যায় না। সংবিধান এই অধিকার সুরক্ষিত করেছে।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement