১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শুক্রবার ৩ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বাংলার মন জয়ের চেষ্টা! সাধারণতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে শ্যামাপ্রসাদের নামাঙ্কিত ট্যাবলো

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: January 24, 2020 10:54 am|    Updated: January 24, 2020 11:24 am

Ministry of Shipping tableau on R-Day to showcase Kolkata Port Trust

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজ্যের প্রস্তাবিত ট্যাবলোকে জায়গা দেওয়া হয়নি। তাসত্ত্বে দিল্লিতে হতে চলা সাধারণতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে উপস্থিত থাকবে বাংলা। সদ্য বদলে যাওয়া নাম নিয়ে নিজেদের ১৫০ বছরের ইতিহাস একটি ট্যাবলোর মধ্যে ফুটিয়ে তুলবে কলকাতা পোর্ট ট্রাস্ট (Kolkata Port Trust)। গত ১২ জানুয়ারি কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টের ১৫০ বছর পূর্তির অনুষ্ঠানে এসে কলকাতা বন্দরের নাম ড. শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের নামে করার কথা ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বিষয়টি নিয়ে বাংলার কয়েকজন বুদ্ধিজীবী বিতর্ক তৈরির চেষ্টা করলেও তা ধোপে টেকেনি। বরং সাধারণ মানুষদের অনেকে এতে খুশি হয়েছেন বলে বঙ্গ বিজেপি সূত্রে খবর।

বিষয়টি জানতে পারার পরেই পোর্ট ট্রাস্টের উদ্যোগে শ্যামাপ্রসাদের নামে ট্যাবলো তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়। জানা গিয়েছে, কলকাতা বন্দরের তরফে সাধারণতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে অংশ নিতে চলা ওই ট্যাবলোর সামনে হিন্দি ও ইংরেজিতে কলকাতা পোর্ট ট্রাস্ট লেখা থাকবে। আর ট্যাগ লাইন থাকছে, ‘150 Years – Glorious Past. Vibrant Future’। ট্যাবলোটি সাজানো হবে কলকাতা তথা পশ্চিমবঙ্গের ঐতিহ্য হিসেবে পরিচিত হাওড়া ব্রিজ, কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টের আইকনিক ক্লিক টাওয়ার ও কনটেনারের আদলে। থাকবে পোর্ট ট্রাস্টের শ্রমিক ও ইঞ্জিনিয়ারদের কাজ করার বিভিন্ন ছবিও।

[আরও পড়ুন: কাশ্মীরে তৃতীয় পক্ষ নয়, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে কড়া বার্তা নয়াদিল্লির ]

 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এবার সাধারণতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে ১৬টি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত এলাকা এবং বিভিন্ন মন্ত্রকের ৬টি ট্যাবলো মিলিয়ে মোট ২২টি ট্যাবলো থাকছে। যদিও পশ্চিমবঙ্গ, কেরল, বিহার ও মহারাষ্ট্র-সহ বেশ কয়েকটি রাজ্যের ট্যাবলোকে বাতিল করে দেয় কেন্দ্রীয় সরকার। এবার কন্যাশ্রী প্রকল্পকে মূল থিম করে ট্যাবলো পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল পশ্চিমবঙ্গ সরকার। কিন্তু, বিষয়টির মধ্যে নতুনত্ব নেই এই দাবি করে তা বাতিল করে দেয় কেন্দ্র। বিষয়টিকে প্রতিহিংসা বলেই অভিযোগ জানানো হয়েছিল রাজ্য সরকারের তরফে। রাজনৈতিক কারণে বিজেপি বিরোধী রাজ্যগুলিকে বঞ্চনা করা হচ্ছে বলেও দাবি করে বিরোধীরা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে