১ আষাঢ়  ১৪২৬  রবিবার ১৬ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

১ আষাঢ়  ১৪২৬  রবিবার ১৬ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ঢাকের দায়ে মনসা বিকিয়ে যাওয়ার জোগাড়৷ বাংলা প্রবাদটি যেন ভারতীয় রাজনীতির সারমর্ম৷ কাজের থেকে প্রচারেই বিপুল অর্থ ব্যয় করে আসছে রাজনৈতিক দলগুলি৷ দেশে কর্মসংস্থান বাড়াতে যখন বারবার বিদেশি লগ্নির কথা বলা হচ্ছে, তখন বিগত পাঁচ বছরে সরকারের কাজের খতিয়ান তুলে ধরতে মোদি সরকার খরচ করেছে প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকা৷

[আরও বিপাকে রাজীব কুমার, তাঁর বিরুদ্ধে লুকআউট নোটিস জারি অভিবাসন দপ্তরের]

অর্থনীতির গ্রাফ উর্ধ্বমুখী থাকলেও শিক্ষিত বেকারের জন্য কর্মসংস্থান কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ ২০১৪ সালে ক্ষমতায় এসে বেকারত্বের বিরুদ্ধে লড়াই ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ তবে পরিসংখ্যান কিন্তু সরকারের বিফলতার দিকেই আঙুল তুলছে৷ গ্রেটার নয়ডার সমাজকর্মী তথ্য জানার অধিকার আইনে কেন্দ্রের এই প্রচারের কথা জানতে চেয়েছিলেন।

সেখানেই উঠে এসেছে এমন খরুচে তথ্য। সেখানে দেখা যাচ্ছে, নিজেদের প্রচারে প্রিন্ট মিডিয়াতেই ভরসা বেশি কেন্দ্রের। খবরের কাগজে তারা ১,৬৯৮ কোটি টাকার বিজ্ঞাপন দিয়েছে। এর কিছুটা পিছনে রয়েছে বৈদ্যুতিন মাধ্যম। ইলেকট্রনিক মিডিয়া হিসাবে কমিউনিটি রেডি, দূরদর্শন, ইন্টারনেট, টিভি ও এসএমএস করে কেন্দ্র খরচ করেছে ১,৬৫৬ কোটি টাকা। এখানেই শেষ নয়, আউটডোর বিজ্ঞাপন হিসাবে হোর্ডিং, পোস্টার, ব্যানার, বুকলেট, ক্যালেন্ডারের নিজেদের প্রচারে কেন্দ্র দিয়েছে ৩৯৯ কোটি টাকা। ক্ষমতায় আসার পর থেকে ২০১৭ সালের অক্টোবর পর্যন্ত এই বিপুল অর্থ খরচ করা হয়েছে। আরটিআইয়ের তথ্যে স্পষ্ট আত্মপ্রচারে কেন্দ্র ৩,৭৫৫ কোটি খরচ করলেও বেশ কিছু মন্ত্রক চেয়েও অর্থ পায় না। এমন কিছু মন্ত্রক আছে যাদের বার্ষিক বাজেট এই অর্থের থেকে অনেক কম। দূষণ নিয়ন্ত্রণের জন্য মোদি সরকার অনেক কথা বলে। কিন্তু গত কয়েক বছরে এই কর্মসূচিতে মাত্র ৫৬ কোটি বরাদ্দ হয়। প্রচারের মাধ্যমে নরেন্দ্র মোদিকে তুলে ধরাই যে কেন্দ্রর লক্ষ্য তা স্পষ্ট খরচের বহরে। দেখা যাচ্ছে শুধু প্রধানমন্ত্রীর ছবি বা কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রচারে খরচ হয়েছে ১১০০ কোটি টাকা। যার মধ্যে অন্যতম ‘মন কি বাত’। বেতারে মোদির এই ভাষণের শুধু এক মাসে বিজ্ঞাপনের খরচ ৮.৫ কোটি টাকা।

বছর দুয়েক আগে আম আদমি পার্টির বিজ্ঞাপন নিয়ে সমালোচনায় সরব হয়েছিল কেন্দ্রের শাসকদল। আরটিআই রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসার পর তারা সাফাই দেওয়ার ঢঙে বলছে মানুষের জন্য যে কাজ তারা করেছে, তা জানাতেই এই ব্যবস্থা। যা শুনে কটাক্ষ করেছে বিরোধীরা। তাদের বক্তব্য, সাধারণের করের অর্থ থেকে মণ মণ ঘি ঢেলে যাচ্ছে বিজেপি। মানুষই এর জবাব দেবে। তবে বিরোধীদের ধুলিস্যাৎ করে চলতি নির্বাচনে আরও প্রবল হয়ে উঠতে দেখা গেল মোদি সুনামিকে৷     

[অন্ধ্রপ্রদেশে আজব ফল, কংগ্রেস ও বিজেপির থেকে বেশি ভোট পড়ল নোটায়!]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং