BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা আতঙ্কের জের, বাতিল আরএসএসের জাতীয় নীতি নির্ধারক কমিটির বার্ষিক বৈঠক

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: March 16, 2020 2:53 pm|    Updated: March 16, 2020 3:29 pm

An Images

ছবিটি প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা আতঙ্কের জেরে বাতিল হল রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের নীতি নির্ধারক কমিটি অখিল ভারতীয় প্রতিনিধি সভার বার্ষিক বৈঠক। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যখন বিজেপি বিধায়ক ও বিভিন্ন হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের নেতারা গোবর আর গোমূত্র খেলে এবং ভগবানের স্মরণ নিলে করোনার জন্য কোনও ক্ষতি হবে না বলেও দাবি করছেন। দিল্লিতে বসেই যখন গোমূত্র পার্টির আয়োজন করছে হিন্দু মহাসভার নেতারা। তখন দেশের সবথেকে বড় হিন্দুত্ববাদী সংগঠন হিসেবে পরিচিত সংগঠনই সেই পথে হাঁটল না। তার বদলে সরকারের নির্দেশ মেনে জমায়েত না করার সিদ্ধান্ত নিল।

রবিবার থেকে কর্ণাটকের রাজধানী বেঙ্গালুরুতে তিনদিনের এই বৈঠক শুরু হওয়ার কথা ছিল। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আরএসএস (RSS)’র ছত্রছায়ায় থাকা প্রায় ৩৫ সংগঠনের প্রতিনিধি-সহ দেড়হাজার জন হাজির থাকতেন এখানে। আগামী দিনে সংঘ কোনও পথে চলবে তার সিদ্ধান্ত হত। কিন্তু, করোনা ভা নিয়ে আতঙ্কের জেরে তা বাতিল করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: তাবিজ ধারণ করলেই দূর হবে করোনা ভাইরাস! উপায় বাতলে গ্রেপ্তার ‘বাবাজি’ ]

 

শনিবার এবিষয়ে একটি বিবৃতি প্রকাশ করেন আরএসএসের সরকার্যাবহ সুরেশ জোশী। তাতে উল্লেখ করা হয়েছে, করোনা ভাইরাসের ফলে বিশ্বব্যাপী মহামারির পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। বিষয়টির গুরুত্ব বুঝতে পেরে রাজ্য সরকারগুলি ও কেন্দ্রীয় সরকার জমায়েত না করার নির্দেশিকা জারি করেছে। এই বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনার পর বেঙ্গালুরুতে এবিপিএসের যে বৈঠক হওয়ার কথা ছিল তা বাতিল করা হল।

[আরও পড়ুন: শীঘ্রই শুরু হবে ‘ভারচুয়াল কোর্ট’, করোনা রুখতে পদক্ষেপ শীর্ষ আদালতের]

 

প্রতিদিনই বাড়ছে করোন ভাইরাসের প্রকোপে মৃত মানুষের সংখ্যা। আর এর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে আতঙ্কও। বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশের সরকারই এই মারণ ভাইরাসের মোকাবিলা করার জন্য সবরকমের চেষ্টা চালাচ্ছে। একই পরিস্থিতি চোখে পড়ছে ভারতেও। কেন্দ্রীয় সরকারের পাশাপাশি রাজ্যের তরফেও প্রয়োজনীয় সমস্ত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। তারপরও কমছে না দুশ্চিন্তা। তবে এর মাঝেই ভারতের কিছু ধর্মীয় নেতা ও রাজনৈতিক নেতার মন্তব্যকে ঘিরে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। অসমের এক বিজেপি বিধায়ক সুমন হরিপ্রিয়া বিধানসভায় দাঁড়িয়ে দাবি করেছিলেন, গোবর ও গোমূত্র ব্যবহার করলে করোনার কবল থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। বঙ্গ বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছিলেন, তাঁদের উপর মায়ের আর্শীবাদ রয়েছে। তাই মায়ের প্রসাদ খেলেই করোনা আর কিছু করতে পারবে না। কিন্তু, তাঁদের এই দাবি মানল না খোদ রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘই।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement