২৬ আষাঢ়  ১৪২৭  শনিবার ১১ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

পালঘরের পর নান্দেদ, গলায় চার্জারের তার জড়িয়ে মহারাষ্ট্রে ২ সাধুকে খুন

Published by: Sayani Sen |    Posted: May 24, 2020 6:05 pm|    Updated: May 24, 2020 7:41 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মহারাষ্ট্রের পালঘরের পর এবার নান্দেদ। তবে এবার আর গণপিটুনি নয়। গলায় চার্জারের তার জড়িয়ে খুন করা হল দুই সাধুকে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, লুটপাটে বাধা দেওয়ায় তাঁদের খুন করা হয়েছে। অপরাধীরা নিহতদের পরিচিত বলেই অনুমান তদন্তকারীদের।

শনিবার রাতে নান্দেদ উমরি তালুকের বালব্রহ্মচারী শিবাচার্য এবং তাঁর সঙ্গী ভগবান শিণ্ডে নামে ওই দুই সাধুকে আশ্রমের শৌচালয়ের কাছে পড়ে থাকতে দেখা যায়।  পুলিশের অনুমান, বেশ কয়েকজন আততায়ী লুটপাটের উদ্দেশ্যে আশ্রমে আসে। তাদের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন শিবাচার্য। শিবাচার্যের সঙ্গী ভগবান শিণ্ডেরও ধস্তাধস্তি শুরু হয়। সেই সময় চার্জারের তার গলায় জড়িয়ে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয় তাঁদের। ওই আশ্রম ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় শিবাচার্যের গাড়ির চাবি হাতিয়ে নেয় দুষ্কতীরা। তবে গাড়ি নিয়ে সাবধানে বেরতে পারেনি তারা। আশ্রমের দরজায় ধাক্কা লাগে। ধাক্কার প্রচণ্ড শব্দ অন্যান্য আশ্রমিকদের কানে যায়। তাঁরা ঘুম থেকে জেগে যান। পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা।

[আরও পড়ুন: অশান্তির জেরে আত্মহত্যার চেষ্টা, স্বামীর চালানো গুলি মাথা ফুঁড়ে লাগল গর্ভবতী স্ত্রীর গায়ে]

তারা নগদ ৬৯ হাজার টাকা, ল্যাপটপ-সহ বেশ কিছু ল্যাপটপ এবং মূল্যবান জিনিসপত্র চুরি করে নিয়ে যায়। নান্দেদের তদন্তকারী পুলিশের অনুমান, চুরির উদ্দেশ্যেই আশ্রমে ঢুকেছিল ওই দুষ্কৃতীরা। শিবাচার্য এবং তাঁর ভক্ত বাধা দেওয়ায় পথের কাঁটা সরাতেই তাঁদের খুন হতে হয়েছে। এই ঘটনায় জেলা পুলিশের ৫টি দল তৈরি করে তদন্ত চলছে বলেই জানিয়েছেন নান্দেদের পুলিশ সুপার বিজয়কুমার মাগর। অভিযুক্তরা ওই সাধুদের পরিচিত বলেই অনুমান তদন্তকারীদের। এই ঘটনায় সাম্প্রদায়িক বিভাজনের কোনও যোগসূত্র নেই বলেই জানিয়েছে পুলিশ।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement