১৪ মাঘ  ১৪২৯  রবিবার ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

‘শৌচালয় পরিষ্কারের জন্য সাংসদ হইনি’, ফের বিতর্কিত মন্তব্য সাধ্বী প্রজ্ঞার

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: July 22, 2019 6:48 pm|    Updated: September 16, 2020 3:29 pm

Sadhvi Pragya working against PM Modi, she belongs to upper caste.

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নর্দমা পরিষ্কারের জন্য সাংসদ নির্বাচিত হননি বলে জানিয়েছিলেন বিজেপি সাংসদ প্রজ্ঞা সিং ঠাকুর। ভোপালের এক বিজেপি কর্মী তাঁর এলাকার স্বাস্থ্য ও পরিচ্ছন্নতার বিষয়ে প্রশ্ন করেছিলেন। এর প্রেক্ষিতে এই মন্তব্য করেছিলেন মালেগাঁও বিস্ফোরণে অভিযুক্ত প্রজ্ঞা। সোমবার তাঁর এই মন্তব্য নরেন্দ্র মোদির আর্দশের বিরোধী বলে দাবি করলেন এআইএমআইএম প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসি। শুধু তাই নয়, এই মন্তব্যের জন্য প্রজ্ঞাকে নোটিস পাঠিয়ে জবাবদিহি করতে বলেছেন বিজেপির কার্যকরী সভাপতি জেপি নাড্ডা।

[আরও পড়ুন- চাঁদের অন্ধকার দিকে আলো ফেলতে পাড়ি দিল চন্দ্রযান ২]

রবিবার ভোপালের সেহোরে এলাকায় একটি কর্মিসভা করতে গিয়েছিলেন স্থানীয় সাংসদ। সেখানে এক কর্মীর প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “আমি আপনাদের নর্দমা বা শৌচালয় পরিষ্কার করার জন্য নির্বাচিত হইনি। যে কাজের জন্য নির্বাচিত হয়েছি তা আমি সততার সঙ্গে করব। একথা আমি আগে বলেছি, এখনও বলছি আর আগামীদিনেও বলব। একজন সাংসদের কাজ হল বিধায়ক, কাউন্সিলার ও জন প্রতিনিধিদের নিয়ে এলাকার উন্নয়ন করা। আমি তাই করব।”

তাঁর এই মন্তব্যের পরেই দেশজুড়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়। প্রজ্ঞা সিং ঠাকুরের এই মন্তব্য নরেন্দ্র মোদির স্বচ্ছ ভারত প্রকল্পের পরিপন্থী বলে দাবি করে বিরোধীরা। প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের প্রকল্পকে তাঁরই দলের সাংসদ অপমান করছে বলে কটাক্ষ করে। সোমবার প্রজ্ঞা নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে কাজ করছেন বলে দাবি করলেন হায়দরাবাদের সাংসদ আসাদউদ্দিন ওয়াইসি।

[আরও পড়ুন- অন্যের হাত ধরলেন প্রেমিকা, ফেসবুকে লাইভ করে মন্দিরে আত্মঘাতী যুবক]

এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, “এই মন্তব্য করে সোজাসুজি প্রধানমন্ত্রী মোদিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন সাধ্বী প্রজ্ঞা। এতদিন ধরে মোদি যা প্রচার করার চেষ্টা করছেন তার বিরোধিতা করেছেন উনি। পাশাপাশি প্রমাণ করতে চেয়েছেন তিনি উঁচুজাতের, তাই যাঁরা শৌচালয় বা নর্দমা পরিষ্কার করেন তাঁরা ওনার মতো মানুষের সমকক্ষ নন। এভাবে আপনি কী করে নতুন ভারত তৈরি করবেন! প্রজ্ঞা হেমন্ত কারকারের মতো মানুষকে অভিশাপ দিয়ে নাথুরাম গডসের প্রশংসা করেন। ভারতে ফের জাতিভেদ প্রথা ফিরিয়ে আনতেও চান।”

এদিকে, সাধ্বী প্রজ্ঞার মন্তব্য নিয়ে বিতর্ক শুরু হতেই তাঁকে নোটিস পাঠিয়েছে বিজেপি। দিল্লির সদর দপ্তরে গিয়ে তাঁকে জবাবদিহি করার নির্দেশ দিয়েছেন বিজেপির কার্যকারী সভাপতি জেপি নাড্ডা ও সাধারণ সম্পাদক বি এল সন্তোষ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে