২৩  শ্রাবণ  ১৪২৯  বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

নাগরিকত্ব নিয়ে অভিযোগ ভিত্তিহীন, রাহুলকে স্বস্তি দিল সুপ্রিম কোর্ট

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: May 9, 2019 3:17 pm|    Updated: May 9, 2019 3:17 pm

SC junks petition questioning Rahul Gandhi's citizenship.3

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভোটার মাঝে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর নাগরিকত্ব নিয়ে নতুন করে জলঘোলা শুরু হয়েছিল। আপাতত সেসব বিতর্কে ইতি পড়ল। কংগ্রেস সভাপতির নাগরিকত্ব নিয়ে দায়ের হওয়া অভিযোগ খারিজ করে দিল সর্বোচ্চ আদালত। রাহুল গান্ধীর দ্বৈত নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলে সর্বোচ্চ আদালতে অভিযোগ করেন দিল্লির দুই বাসিন্দা। তাদের দাবি ছিল, কংগ্রেস সভপতির নাগরিকত্ব নিয়ে যে প্রশ্ন উঠেছে তার প্রেক্ষিতে কেন্দ্র বা নির্বাচন কমিশন কেউই উপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়নি। তাই, সুপ্রিম কোর্ট কেন্দ্রকে নির্দেশ দিক, তাঁরা যেন রাহুলে দ্বৈত নাগরিকত্বের অভিযোগটি আরও গুরুত্ব দিয়ে দেখে।

[আরও পড়ুন: বারাক ওবামার পর এবার এই রেকর্ডের মালিক নরেন্দ্র মোদি]

দুই অভিযোগকারীর নাম, জয় ভগবান গোয়েল এবং চান্দের প্রকাশ ত্যাগী। এই দুই ব্যক্তি ২০০৫-০৬ সালের ইংল্যান্ডের এক সংস্থার দেখানো একটি ফর্মকে প্রমাণ হিসেবে দেখিয়েছিলেন। যে ফর্মে রাহুল গান্ধীকে ব্রিটিশ নাগরিক হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছিল। দুই অভিযোগকারী সর্বোচ্চ আদালতকে অনুরোধ করেন, শীর্ষ আদালত যাতে খতিয়ে দেখে রাহুলের দ্বৈত নাগরিকত্ব আছে কিনা। তাঁকে নির্বাচনে লড়তে দেওয়া উচিত কিনা। কিন্তু, অভিযোগকারীদের দেওয়া নথিকে প্রামাণ্য হিসেবে ধরতে রাজি হয়নি সর্বোচ্চ আদালত। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ বলেন, ” যদি কোনও সংস্থা কোনও একটি ফর্মে ওনাকে ব্রিটিশ নাগরিক বলে উল্লেখ করে তাহলেই কি উনি ব্রিটিশ নাগরিক হয়ে যাবেন?”

[আরও পড়ুন: শ্বশুরবাড়ির লোকদের নিয়ে যুদ্ধজাহাজে চেপে বেড়াতে গিয়েছিলেন রাজীব, অভিযোগ মোদির]

বিতর্কের সূত্রপাত ২০০৫ সালে। বিজেপি সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামী অভিযোগ করেন, রাহুল গান্ধী ইংল্যান্ডের একটি সংস্থায় নিজেকে ব্রিটিশ নাগরিক হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন। ২০০৬ সালে এ প্রসঙ্গে রাহুল গান্ধী পালটা তোপ দাগেন সুব্রহ্মণ্যম স্বামীকে। রাহুলের পালটা দাবি, ভ্রান্ত তথ্য দিয়ে গোটা দেশকে বিভ্রান্ত করছেন স্বামী। কিন্তু তাতেও দমেননি বিজেপি সাংসদ। কিছুদিন আগেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে রাহুলের নাগরিকত্ব নিয়ে অভিযোগ করেন তিনি। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই কংগ্রেস সভাপতিকে নোটিস পাঠানো হয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে। যদিও, কংগ্রেস সভাপতি এখনও সেই নোটিসের জবাব দেননি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে