BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

নাগরিকত্ব নিয়ে অভিযোগ খারিজ, রাহুলের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা কমিশনের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 22, 2019 8:56 pm|    Updated: April 22, 2019 8:56 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাহুল গান্ধীর নাগরিকত্ব নিয়ে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ খারিজ করে দিল নির্বাচন কমিশন। কংগ্রেস সভাপতির আমেঠির মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করলেন রিটার্নিং অফিসার। এক নির্দল প্রার্থীর অভিযোগের ভিত্তিতে রাহুল গান্ধীর নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের নেতাদের অভিযোগ ছিল, রাহুল গান্ধীর কাছে একাধিক দেশের পাসপোর্ট রয়েছে। তিনি একই সঙ্গে একাধিক দেশের নাগরিক। কিন্তু, কংগ্রেস সভাপতির আইনজীবীর সঙ্গে কথা বলার পর সেসব অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছে কমিশন।

[আরও পড়ুন: সুপ্রিম কোর্টে ‘ক্ষমা চাওয়া’র পর ফের ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’ লিখে টুইট রাহুলের]

সোমবার রাহুল গান্ধীর আইনজীবী রিটার্নিং অফিসারের সঙ্গে দেখা করে সাফ জানিয়ে দেন, কংগ্রেস সভাপতি ভারতীয়। তাঁর জন্ম ভারতে, তাঁর ভোটার আইডি কার্ড, পাসপোর্ট, আয়করের নথি সবই ভারতীয়। তিনি আরও জানিয়ে দেন, “কংগ্রেস সভাপতি কখনও কোনও বিদেশি নাগরিকত্ব গ্রহণ করেননি। আর রাউল ভিঞ্চি কে বা কোথা থেকে তাঁর নাম আসছে, সেসব আমরা জানি না।” রাহুলের আইনজীবী রিটার্নিং অফিসারের কাছে যাবতীয় নথি পেশের পরই তাঁর নাগরিকত্ব বৈধ হিসেবে গণ্য হয়েছে। এদিন রাহুলের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে ওঠা যাবতীয় প্রশ্নেরও উত্তর দেন তাঁর আইনজীবী। তিনি বলেন, “রাহুল গান্ধী কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম ফিল করেছেন ১৯৯৫ সালে। আমরা সেই সার্টিফিকেটও দিয়েছি।”

[আরও পড়ুন:আপের সঙ্গে জোট জল্পনার অবসান, দিল্লির ছয় আসনে প্রার্থী ঘোষণা কংগ্রেসের]

এর আগে গত শনিবার কংগ্রেস সভাপতির মনোনয়নপত্রে দেওয়া হলফনামাকে হাতিয়ার করে তাঁর নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলেন এক নির্দল প্রার্থী। রাহুল গান্ধীর মনোনয়নপত্রে দাখিল করা তথ্যে অসঙ্গতি আছে। এই অভিযোগ জানিয়ে কমিশনের দ্বারস্থ হন আমেঠির নির্দল প্রার্থী ধ্রুব লাল। ওই প্রার্থীর আইনজীবী রবি প্রকাশ বলেন, “ইংল্যান্ডের একটি কোম্পানির ঘোষণাপত্রে, নিজেকে ইংল্যান্ডের নাগরিক হিসেবে উল্লেখ করেছেন তিনি। ভারতীয় জনপ্রতিনিধিত্ব আইন অনুযায়ী, একজন বিদেশি নাগরিক দেশের নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে অংশগ্রহণ করতে পারেন না। রাহুল গান্ধীর নামে কোনও শংসাপত্র নেই বলেও দাবি করেন ওই নির্দল প্রার্থীর আইনজীবী। সেসব অভিযোগ এবার খারিজ হয়ে গেল।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement