BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

সূর্যের মুখ ঢাকল আঁধারে, বছরের শেষ গ্রহণের সাক্ষী দেশবাসী

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: December 26, 2019 9:00 am|    Updated: December 26, 2019 1:58 pm

Solar eclipse partially visible in Kolkata, best from South India

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বছরের শেষ মহাজাগতিক ঘটনার সাক্ষী বিশ্ববাসী।আজ, বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টা ২৭ মিনিট থেকে শুরু হয়েছে দশকের শেষ বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ। চলবে প্রায় তিন ঘণ্টা – ১১টা ৩২ মিনিট পর্যন্ত। আর এই দীর্ঘ সময় ধরে যা দৃশ‌্যমান হবে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। সবচেয়ে ভালভাবে গ্রহণ প্রত্যক্ষ করা যাবে সকাল সাড়ে ৯ টা থেকে ৯টা ৫৩ মিনিট পর্যন্ত।

তবে আজ কলকাতার আকাশ মেঘলা থাকবে। বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর। তাই কলকাতা থেকে সূর্যগ্রহণ খুব ভালভাবে দেখা যায়নি। তবে জলপাইগুড়ি, কোচবিহার-সহ উত্তরবঙ্গের কোনও কোনও অঞ্চল থেকে দৃশ্যমান হতে পারে বিরল রিং অফ ফায়ার কিংবা সৌরবলয়। অন্যদিকে, দক্ষিণ ভারতের বেশ কয়েকটি জায়গা থেকে ভালভাবে দৃশ্যমান হয়েছে গ্রহণ। এই তিন ঘণ্টা কেটে যাওয়ার পর জাঁকিয়ে ঠান্ডা পড়বে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে। বর্ষবরণ পর্যন্ত শীতের দাপট চলবে।

[আরও পড়ুন: ‘সরকারি সম্পত্তি রক্ষার দায়িত্ব নাগরিকদেরই’, CAA বিরোধীদের বিঁধলেন মোদি ]

এদিন সূর্যগ্রহণের সময়টুকু অর্থাৎ প্রায় তিন ঘণ্টা ধরে বন্ধ থাকবে তারাপীঠের মন্দির। বীরভূমের অন‌্য পাঁচটি সতীপীঠের মন্দিরও গ্রহণের সময় বন্ধ থাকছে। গ্রহণের সময় মন্দির চত্বরে চলবে হরিনাম সংকীর্তন। এবারের সূর্যগ্রহণ বলয়গ্রাস। এই সময় খালি চোখে সূর্যের দিতে তাকানো উচিত নয়। বিশেষ চশমা দিয়ে গ্রহণ দেখার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। ভুবনশ্বর, চেন্নাই-সহ একাধিক জায়গার মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র থেকে বিশেষ যন্ত্রের সাহায্যে সূর্যগ্রহণ দেখার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেখানে সকাল থেকেই ভিড় উৎসাহী জনতার।

তিরুবনন্তপুরমের সেন্ট্রাল স্টেডিয়ামে এলইডি স্ক্রিন থেকে শুরু করে, পিনহোল ক‌্যামেরা, সোলার ফিল্টার-সহ যাবতীয় সামগ্রীর আয়োজন করা হয়েছে। তবে বলয়গ্রাসের পথ থেকে যত উত্তরে বা দক্ষিণে যাওয়া হবে, তত সূর্যের কম অংশকে গ্রহণ হিসাবে ঢাকা পড়তে দেখা যাবে। কলকাতাও এই তালিকাতেই পড়েছে। এছাড়াও সৌদি আরব, ইন্দোনেশিয়া, শ্রীলঙ্কা এবং সিঙ্গাপুরের কিছু কিছু স্থান থেকে গ্রহণ দেখা যাবে।

[আরও পড়ুন: শচীনের নিরাপত্তা কমিয়ে বিতর্কের মুখে মহারাষ্ট্র সরকার]

নাসার হিসেব অনুযায়ী, একুশ শতকের সবচেয়ে দীর্ঘমেয়াদি বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ ছিল ২০১০ সালের ১৫ জানুয়ারি। সেদিন গ্রহণের স্থায়িত্ব ছিল ১১ মিনিট ৭.৮ সেকেন্ড। সাধারণত বলয়গ্রাসের মেয়াদ ১২ মিনিট ২৯ সেকেন্ডের বেশি হতে পারে না। ২০৪৯ এবং ২০৫০ সালে পরপর দেখা যাবে সূর্যের মিশ্র গ্রহণ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে