BREAKING NEWS

১৭  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘সত্যিকারের মা হয়ে উঠতে পারে না সৎ মা’, মন্তব্য হাই কোর্টের

Published by: Biswadip Dey |    Posted: December 26, 2021 3:57 pm|    Updated: December 26, 2021 3:57 pm

Stepmothers may not show same affection for Kids as Biological Mothers, Says High Court। Sangbad Pratidin

প্রতীকী ছবি।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সন্তানের দেখভাল করা কিংবা তাকে ভালবাসার ক্ষেত্রে গর্ভধারিণী মায়ের মতো হয়ে উঠতে পারে না সৎ মা (Stepmother)। এক মামলায় এমনটাই জানাল কর্ণাটক (Karnataka) হাই কোর্ট (high Court)। এক বাবা ও মায়ের মধ্যে সন্তানের দায়িত্ব পাওয়া নিয়ে দায়ের হওয়া এক মামলায় এই কারণ দেখিয়েই বাবাকে সন্তানের দায়িত্ব দিল না আদালত। যুক্তি, ওই ব্যক্তি পুনর্বিবাহ করেছেন।

বেঙ্গালুরুতে জমা পড়া এক পিটিশনের ভিত্তিতে ওই মামলার শুনানি চলার সময় বিচারপতি কৃষ্ণ এস দীক্ষিত জানিয়ে দেন, ওই ব্যক্তি সন্তানের দায়িত্ব পাবেন না। তিনি বলেন, ”এটা দেখা যাচ্ছে, আবেদনকারীর স্ত্রী ছাড়া তাঁর পরিবারে আর কোনও মহিলা নেই যিনি ওই শিশুটির দেখভাল করতে পারবেন। এটা বলা কঠিন ওঁর স্ত্রী, শিশুটির সৎ মা এই দায়িত্ব নিতে রাজি হবেন কিনা। এদিকে মাতৃত্বের সম্পর্কের জোরে সন্তানের প্রতি গভীর আসক্তি তৈরি হয় এটা বিশ্বাস করার যথেষ্ট কারণ রয়েছে।”

[আরও পড়ুন: আঠেরোর অপেক্ষা নয়, বয়ঃসন্ধি পেরোলেই বিয়ে করতে পারে মুসলিম মেয়েরা! বলছে আদালত]

আদালতের কাছে শিশুটির বাবার আবেদন ছিল, যেহেতু তিনি আর্থিক ভাবে অনেক বেশি স্বচ্ছল তাই শিশুটি তাঁর কাছে নিরাপদেই থাকবে। কেননা তার বেড়ে ওঠা, শিক্ষালাভ ও পারিবারিক পরিবেশ প্রাপ্তি- কোনওটাতেই ঘাটতি থাকবে না। এর উত্তরে আদালত জানায়, এই যুক্তি এক্ষেত্রে খাটে না। কেননা শিশুর সমস্ত প্রয়োজনীয়তার সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে তার মায়ের। তাছাড়া শিশুটিও মায়ের সঙ্গেই থাকতে চায় বলে আদালত জানিয়েছে। পাশাপাশি আদালতের আরও যুক্তি, শিশুটিকে বাবার কাছে থাকতে দিলে আবেদনকারী মহিলা একদম একা হয়ে যাবেন।

শেষ পর্যন্ত ওই ব্যক্তির পিটিশন বাতিল করে দিয়েছে হাই কোর্ট। উল্লেখ্য়, এর আগেও তিনি একই আবেদন নিয়ে পারিবারিক আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। সেখানে লাভ হয়নি। একই রায় ধরে রাখল হাই কোর্টও।

[আরও পড়ুন: ভয়াবহ বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল বিহারের কারখানা, প্রাণ গেল অন্তত ৫ শ্রমিকের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে