৩ মাঘ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৭ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo ফিরে দেখা ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৩ মাঘ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৭ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইংরেজি পরীক্ষায় ভাল নম্বর না পাওয়ায় চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীর মুখে কালি মাখিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল শিক্ষকের বিরুদ্ধে। স্কেচ পেন দিয়ে ওই নাবালিকার মুখে রং করে তাকে ক্লাসরুমের ভিতরে ও স্কুল চত্বরে সমস্ত পড়ুয়াদের সামনে দিয়ে হাঁটান এক শিক্ষক। কিন্তু এতেই নিস্তার মেলেনি ওই পড়ুয়ার। অভিযুক্ত শিক্ষক সমস্ত ছাত্রছাত্রীদের বাধ‌্য করেছেন ওই ছাত্রীর দিকে আঙুল তুলে ‘শেম, শেম’ বলে চিৎকার করতে।মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে হরিয়ানার হিসারের একটি গ্রামের স্কুলে। 

হেনস্তা হওয়া ছাত্রীর বাবা-মায়ের অভিযোগ, ক্লাসে ইংরেজি শিক্ষকের এমন অত‌্যাচারে মানসিকভাবে বিধ্বস্ত হয়ে পড়েছে তাঁদের মেয়ে। ওই ক্লাসের অন‌্য পড়ুয়াদেরও অভিযোগ, ইংরেজি পরীক্ষায় ভাল নম্বর না পাওয়ায় তাদেরও একইভাবে শাস্তি দিয়েছেন অভিযুক্ত শিক্ষক। ঘটনার কথা জানতে পেরে স্কুল ঘিরে বিক্ষোভ দেখায় ওই এলাকার মানুষ। হিসারের পুলিশ অফিসার জগজিৎ সিং জানান, “ছাত্রীর মুখে কালি মাখানোর জন‌্য ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। তার বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে।”

[আরও পড়ুন: বিতর্কের জের, বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃত বিভাগ থেকে ইস্তফা মুসলিম অধ্যাপকের]

ছাত্রীর বাবার কথায়, “৬ ডিসেম্বর আমার মেয়ের ক্লাসে ইংরেজি পরীক্ষা হয়। তাতে কম নম্বর পেয়েছে বলে কেউ ওইটুকু ছাত্রীর মুখে কালি লাগায়? এভাবে অপমান করে কেউ স্কুল জুড়ে মেয়েটাকে ঘুরে বেড়াতে বাধ‌্য করে? চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী পরীক্ষায় পারেনি তো কী হয়েছে? আমি অভিযুক্তর শাস্তি দাবি করছি। স্কুলও বন্ধ করে দেওয়া হোক।” অভিযুক্তশিক্ষকের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন অন্যান্য অভিভাবকরাও। 

[আরও পড়ুন: বুধবার রাজ্যসভায় পেশ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল! আটকে দিতে মরিয়া বিরোধীরা]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং