BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনায় মৃতদের সৎকার নিয়ে উদ্বিগ্ন, বাংলা-সহ চার রাজ্যের কাছে জবাব তলব সুপ্রিম কোর্টের

Published by: Paramita Paul |    Posted: June 12, 2020 2:10 pm|    Updated: June 12, 2020 2:34 pm

An Images

দীপাঞ্জন মণ্ডল, নয়াদিল্লি: বাংলা-সহ একাধিক রাজ্যে করোনা রোগীদের সঠিক দেখভাল করা হচ্ছে না। করোনায় মৃতদের সৎকার ভীষণই অমানবিক। এ নিয়ে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের করেছিল সুপ্রিম কোর্ট। সেই মামলায় শুক্রবার বাংলা-সহ চার রাজ্যকে নোটিশ ধরাল শীর্ষ আদালত। পাশাপাশি করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য সরকার কী ব্যবস্থা নিচ্ছে তা জানতে চেয়ে কেন্দ্রকেও নোটিশ পাঠিয়েছে সুপ্রিম কাের্ট। এদিনের শুনানিতে  করোনা চিকিৎসায় গাফিলতি নিয়ে দিল্লি সরকারকে তুলোধোনা করেন বিচারপতিরা। আগামী ১৭ জুন এই মামলার আগামী শুনানি।

 

করোনায় আক্রান্তরা সঠিক চিকিৎসা পাচ্ছেন না। মৃতদেহ ডাঁই হয়ে পড়ে থাকছে। কোথাও আবার আবর্জনার গাড়িতে চাপিয়ে শ্মশানে পাঠানো হচ্ছে। সংবাদমাধ্যমে দেশের বিভিন্নপ্রান্তে এ ধরণের ছবি উঠে এসেছে। করোনায় মৃতদের অমানবিকভাবে সৎকার করা হচ্ছে। এই অভিযোগ করে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতিকে চিঠি পাঠান দেশের প্রাক্তন আইনমন্ত্রী অশ্বিনী কুমার। সেই চিঠি ও সংবাদ মাধ্যমে রিপোর্টের উপর ভিত্তি করে ভিত্তি করে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের করে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অশোক ভূষণের বেঞ্চ। সেই মামলার শুনানির শুরুতেই বিচারপত শাহ তীব্র ভর্ৎসনা করে বলেন, “মৃতদেহ যেখানে সেখানে ফেলে রাখা হচ্ছে। আবর্জনার স্তূপ থেকে দেহ উদ্ধার হচ্ছে। পশুর থেকেও খারাপভাবে রোগীদের চিকিৎসা করা হচ্ছে। দিল্লির কেজরি সরকারের তুমুল সমালোচনা করে বিচারপতি বলেন, “রোগী মারা গেলে পরিবারের লোক জানতেই পারছেন না। কখনও কখনও তো শেষকৃত্য হাজির থাকতে পারছে না পরিবারের সদস্যরা। হচ্ছেটা কী?” দিল্লির সরকার ও LNJP হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে নোটিশ পাঠিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। পাশাপাশি দিল্লির মুখ্যসচিবকে গোটা বিষয়ের উপর নজর রাখতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি, দিল্লিতে পরীক্ষার সংখ্যা কমে যাওয়া নিয়েও অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন বিচারপতিরা। কেন পরীক্ষার সংখ্যা কমে গিয়েছে, তাও জানতে চাওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন : লকডাউনে বেতন সমস্যায় কর্মীরা, বেসরকারি সংস্থাগুলির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে না সুপ্রিম কোর্ট]

তবে শুধুমাত্র দিল্লি নয়। সুপ্রিম কোর্ট বাংলা, মহারাষ্ট্র ও তামিনলাড়ু সরকারকেও নোটিশ ধরিয়েছে। করোনা রোগীদের কীভাবে চিকিৎসা করা হচ্ছে, মৃতদের কীভাবে সৎকার করা হচ্ছে, সমস্ত কিছু নিয়ে রাজ্যের মুখ্য সচিবের জবাব তলব করেছে শীর্ষ আদালত। সুপ্রিম কোর্টে এই পর্যবেক্ষণের বিশেষ তাৎপর্য রয়েছে বলে মনে করছেন ওয়াকিবহাল মহল। সম্প্রতি, করোনায় মৃতদের সৎকার ইস্যুকে বাংলার বিরোধী দলগুলি রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন। টুইট করে জবাব চেয়েছেন বাংলার রাজ্যপালও। এমন পরিস্থিতিতে শীর্ষ আদালতের নোটিশ রাজ্য সরকারের উপর চাপ বাড়াবে বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

[আরও পড়ুন : কোকা কোলা ও থাম্বস আপ ব্যান নিয়ে মামলা খারিজ সুপ্রিম কোর্টে, জরিমানা করা হল আবেদনকারীকে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement