১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শুক্রবার ২৭ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘করোনা মোকাবিলায় ভিন্ন পদ্ধতি অবলম্বন করুন’, চিঠিতে মোদিকে আরজি রাহুলের

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: March 29, 2020 4:48 pm|    Updated: March 29, 2020 4:48 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউন ঘোষণার পর ভারতের সার্বিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখার আবেদন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর। ভারতের মতো তৃতীয় বিশ্বের দেশে লকডাউন ঘোষণা করা হলে দেশের অর্থনীতি-সহ সাধারণের জীবনের কী হাল হয় তা খতিয়ে দেখার আবেদন করেন সোনিয়াপুত্র। অন্যদিকে, করোনা মোকাবিলায় বাড়ানো হত পারে লকডাউনের সময়সীমা এমনটাই গুঞ্জন শোনা যায় রাজনৈতিক মহলে।

ওয়ানাড সাংসদ রাহুল গান্ধী চিঠিতে প্রধানমন্ত্রীকে লেখেন, “কেন্দ্রীয় সরকার যে মনোভাব নিয়ে চলছে তাতে দেশে করোনা মোকাবিলা করতে লকডাউনের সময়সীমা আরও বৃদ্ধি পেতে পারে। কারণ বিশ্বজুড়ে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে এই মারণ ভাইরাস। তা দমনে শীঘ্রই একটি পদক্ষেপ নিতে হবে। ইতিমধ্যেই ভারতে ৩ সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। তবে ঘরে বসে ১৩০ কোটি দেশবাসীর সার্বিক পরিস্থিতি বোঝা খুবই কঠিন। বাকি দেশগুলির তুলনায় আমাদের দেশের পরিস্থিতি আলাদা। তাই এই মারণ ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই চালাতে ভিন্ন পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে।”

চিঠিতে তিনি আরও জানান, “ভারতের অধিকাংশ মানুষই খেটে খাওয়া শ্রমিক। তারা ‘দিন আনা দিন খাওয়া’ পন্থায় জীবন ধারণ করেন। তাই প্রতিদিনের কাজে যাওয়া বন্ধ হয়ে গেলে তাদের পক্ষে বেঁচে থাকা সম্ভব নয়। এতে চরম ক্ষতির মুখে পড়বে ভারতের অর্থনীতি।” তাই রাহুল গান্ধী প্রধানমন্ত্রীর কাছে আরজি করেন, “করোনা মোকাবিলায় বিশ্বের বাকি দেশগুলির মত একই পন্থা না নিয়ে কিছু আলাদা পদ্ধতি অবলম্বন করতে। দেশের দায়িত্বপূর্ণ নাগরিক হিসেবে অবশ্য মারণ ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করা প্রধান লক্ষ্য হওয়া উচিৎ। কিন্তু তা দেশের মানুষের ক্ষতি করে নয়।”

[আরও পড়ুন: প্রধানমন্ত্রীর আবেদনে সাড়া, তহবিলে একদিনের বেতন দিলেন আয়কর দপ্তরের কর্মীরা]

এই পরিস্থিতির সঙ্গে মোকাবিলা করতে প্রধানমন্ত্রীকে বড় হাসপাতাল, চিকিৎসার প্রয়োজনীয় দ্রব্য দ্রুত দেশে মোতায়েন করার আরজি জানান কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। পাশাপাশি যত দ্রুত সম্ভব ল্যাবরেটরি তৈরির ও আবেদন করেন যাতে দ্রুত ভাইরাসের বিস্তারকে রোধ করা যায়। সেই সঙ্গে ভিন রাজ্যে আটকে পড়া শ্রমিকদের সুষ্ঠুভাবে তাদের বাড়ি ফেরার ব্যবস্থা করারও জন্য চিঠিতে আবেদন করেন।

[আরও পড়ুন: ‘জুতোর বাক্স দিয়ে ভেন্টিলেশন বানাবেন না’, DRDO-র সমালোচনায় কলকাতার চিকিৎসক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement