BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২২ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘জুতোর বাক্স দিয়ে ভেন্টিলেশন বানাবেন না’, DRDO-র সমালোচনায় কলকাতার চিকিৎসক

Published by: Sulaya Singha |    Posted: March 29, 2020 4:12 pm|    Updated: March 29, 2020 4:12 pm

Making of so many ventilation is not possible, says Kolkata Doctor

গৌতম ব্রহ্ম: করোনা মোকাবিলায় তৎপর গোটা দেশ। বিভিন্ন কোম্পানি বিভিন্নভাবে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে। এরই মধ্যে ডিআরডিও (ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গ্যানাইজেশন) আশ্বাস দিয়েছে, রোগীদের সুবিধার্থে শীঘ্রই তারা পাঁচ হাজার ভেন্টিলেশন তৈরি করে দেবে। এমনকী একাধিক গাড়ির কোম্পানিও এ বিষয়ে আগ্রহ দেখিয়েছে। তারাও একজোট হয়ে করোনা রুখতে এগিয়ে আসছে। ভেন্টিলেশন তৈরির চিন্তাভাবনা করছে। কিন্তু আদৌ কি এত কম সময়ে এত বেশি সংখ্যক ভেন্টিলেশন তৈরি সম্ভব? তার গুণগত মান কি আদৌ রোগীদের সুস্থ করে তোলার জন্য যথেষ্ট হবে? নাকি ঘুরে-ফিরে সেই আঙুল তোলা হবে চিকিৎসকদের দিকেই! এ প্রশ্নই এবার তুলে দিলেন কলকাতার এক বেসরকারি হাসপাতালের কার্ডিও থোরাপিক সার্জেন ডা. কুণাল সরকার।

অভিজ্ঞ এই চিকিৎসক পরিসংখ্যান তুলে ধরে জানাচ্ছেন, এত দ্রুত এই পরিমাণ ভেন্টিলেশন তৈরি সম্ভব নয়। তাঁর কথায়, প্রথমত স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে মাসে বড়জোর পাঁচশোটা সঠিক মানের ভেন্টিলেশন তৈরি করা যায়। দ্বিতীয়ত, ডিআরডিও কিংবা গাড়ির যে সব কোম্পানি ভেন্টিলেশন তৈরির কথা বলছে, তাদের এ বিষয়ে কোনও অভিজ্ঞতাই নেই। তাই এক্ষেত্রে শুধু আগ্রহই যথেষ্ট নয়, অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষাও প্রয়োজন। ডা. কুণাল সরকারের দাবি, এভাবে আখেরে মানুষকে মিথ্যে প্রতিশ্রুতিই দেওয়া হচ্ছে। জনসাধারণ এসব খবর দেখে বিভ্রান্তই হবেন। ডিআরডিওর মতো সংস্থার দেশের এমন পরিস্থিতিতে এ ধরনের দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্য না করাই উচিত।

Doctor
ডা. কুণাল সরকার

[আরও পড়ুন: অবশেষে করোনামুক্ত আমলার ছেলে, আশার আলো দেখছে রাজ্যবাসী]

করোনা মোকাবিলায় দেশের বেশ কিছু হাসপাতালকে ঢেলে সাজানো হয়েছে। ভেন্টিলেশনের সংখ্যাও বাড়ানো হয়েছে একাধিক হাসপাতালে। করোনা আক্রান্তদের সুস্থ করে তুলতে নানা পদক্ষেপ করছে সরকার। আর ঠিক তখনই ডিআরডিও পাঁচ হাজার ভেন্টিলেশন তৈরির কথা জানায়। সেই সঙ্গে গাড়ির কোম্পানিগুলি দাবি করে, তারা আরও কিছু ভেন্টিলেশন বানিয়ে সেই সংখ্যাকে ৫০ হাজারে পৌঁছে দেবে। কিন্তু আদতে তা কোনওভাবেই সম্ভব নয় বলেই মনে করছেন ডা. কুণাল সরকার। তিনি বলেন, “এই পরিস্থিতির ফায়দা তুলতে নানাজন নানা কথা বলছেন। এই ধরনের সংস্থাগুলির আরও দায়িত্ববান হওয়া জরুরি। জুতোর বাক্স দিয়ে ভেন্টিলেশন বানাবেন না। তাতে কোনও লাভ হবে না। কারণ এরপর কোনও রোগীর কিছু হলে ডাক্তারদেরই দায়ী করা হবে।”

তবে শুধু ভারত নয়, ইংল্যান্ড, আমেরিকার মতো দেশেও এভাবে মিথ্যে আশ্বাস দেওয়া হচ্ছে মানুষকে। ব্রিটেনে যেমন বলা হয়েছে, দ্রুত চার হাজার ভেন্টিলেশন তৈরি করে দেওয়া হবে। তেমনটা সম্ভব হলেও তার গুণগত মান নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়। করোনা মোকাবিলায় তাই প্রত্যেককে দায়িত্বশীল হতে অনুরোধ জানাচ্ছেন ডা. কুণাল সরকার। মিথ্যে আশ্বাস না দিয়ে, রাজনীতি না করে, দেশের জন্য ঐক্যবদ্ধভাবে লড়তে হবে।

[আরও পড়ুন: তেহট্টের সেই গ্রামে জীবাণুনাশক জেট-স্প্রে গাড়ি পাঠাচ্ছে কলকাতা পুরসভা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে