BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ২৫ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

জাতপাতের লড়াইয়ে আটকাল শেষযাত্রা! ব্রিজ থেকে ঝুলিয়ে নামানো হল দলিতের দেহ

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: August 22, 2019 9:46 pm|    Updated: August 22, 2019 9:46 pm

Dalit man's body airdropped after upper-caste locals block funeral

ব্রিজ থেকে দড়ি দিয়ে ঝুলিয়ে নামানো হচ্ছে মৃতদেহ

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উঁচু জাতের লোকেদের জমির উপর দিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল এক দলিত ব্যক্তির মৃতদেহ। কিন্তু, এর ফলে তাদের জাত নষ্ট হবে। এই অভিযোগ জানিয়ে ওই দলিত ব্যক্তির শেষযাত্রা আটকে দিল উঁচু জাতের লোকেরা। বাধ্য হয়ে ২০ ফুট উঁচু ব্রিজের উপর থেকে দড়ি দিয়ে ঝুলিয়ে ওই মৃতদেহটি নামানো হল নিচে। তারপর অন্য রাস্তা দিয়ে নিয়ে যাওয়া হল শেষকৃত্যের জায়গায়। ঘটনাটি ঘটেছে তামিলনাড়ুর ভেলোর জেলার ভানিয়ামবাদী তালুকে।

[আরও পড়ুন: জেলবন্দি ইন্দ্রাণীর তথ্যেই প্যাঁচে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী চিদম্বরম!]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত শনিবার মৃত্যু হয় ভানিয়ামবাদী তালুকের বাসিন্দা ৪৬ বছরের এন কুপ্পমের। এরপর তাঁর মৃতদেহ সৎকারের জন্য স্থানীয় একটি জায়গায় নিয়ে যাচ্ছিলেন আত্মীয়স্বজন ও প্রতিবেশীরা। কিন্তু, কিছুটা যাওয়ার পরেই শুরু হয় সমস্যা। কুপ্পমের বাড়ি থেকে শেষকৃত্যের জায়গার মাঝে উচুঁ জাতের লোকদের চাষের জমি থাকায় শোভাযাত্রা আটকে দেয় তারা। মৃতের বাড়ির লোকেরা বহুক্ষণ ধরে অনুরোধ করার পরেও মন গলেনি তাদের। বাধ্য হয়ে ২০ ফুট উঁচু একটি ব্রিজের উপর থেকে কুপ্পমের মৃতদেহটি দড়ি বেঁধে নিচে নামানো হয়। তারপর নিয়ে যাওয়া হয় শেষকৃত্যের জায়গায়। 

ওই এলাকার দলিত সম্প্রদায়ের মানুষদের অভিযোগ, এ ধরনের ঘটনা এই প্রথম নয়। এভাবেই তাঁদের সম্প্রদায়ের মানুষদের শেষকৃত্যের কাজ সম্পন্ন হয়। এমনকী তাঁদের জন্য নির্দিষ্ট কোনও শ্মশানও নেই। ফলে শেষকৃত্যের জন্যও অন্য সম্প্রদায়ের মানুষদের দয়ার উপরই নির্ভর করতে হয়। প্রশাসনকে বারবার জানালেও কেউ কোনও পদক্ষেপ নেয়নি। এর ফলে মেটেনি সমস্যাও। কোনও উপায় না থাকায় বাধ্য হয়ে এভাবেই তাঁদের প্রিয়জনদের মৃতদেহের শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হয়।

[আরও পড়ুন: ‘অর্থনীতির বেহাল দশা নিয়ে প্রশ্ন তুলে গ্রেপ্তার চিদম্বরম’, দাবি কংগ্রেসের]

এপ্রসঙ্গে স্থানীয় প্রশাসনিক আধিকারিকরা জানিয়েছেন, এই ঘটনার খবর পেতেই তদন্ত শুরু করা হয়েছে। যদি সত্যি এই রকমের কোনও ঘটনা ঘটে থাকে তাহলে দোষী ব্যক্তিদের কড়া শাস্তি দেওয়া হবে। কাউকেই ছাড়া হবে না।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে