২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

জ্বর সারাতে একরত্তির শরীরে গরম ইস্ত্রির ছ্যাঁকা তান্ত্রিকের! রাজস্থানে গুরুতর আহত ৭ মাসের শিশু

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: October 17, 2021 8:42 pm|    Updated: October 17, 2021 8:47 pm

Tantrik used hot iron to reduce temperature of 7 months old baby in Rajasthan | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হাওয়া বদলের মরশুম। সাত মাসের বাচ্চাটার জ্বর, সর্দিকাশি হয়েছিল। ওষুধেও সে সুস্থ হচ্ছিল না। তাই মা-বাবার চিন্তা বাড়ছিল। প্রতিবেশীদের পরামর্শে তাই সন্তানকে তান্ত্রিকের কাছে নিয়ে গিয়েছিলেন দম্পতি। কিন্তু তারপর যা ঘটল, তা বোধহয় দুঃস্বপ্নেও ভাবতে পারেননি তাঁরা। জ্বর সারাতে একরত্তির শরীরে গরম ইস্ত্রি চালিয়ে দিল তান্ত্রিক! রাজস্থানের (Rajasthan) ভিলওয়াড়ের ঘটনায় শিশুটিকে হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। ঘটনার আকস্মিকতায় চমকে গিয়েছেন শিশুটির মা, বাবাও। তাঁরা তান্ত্রিকের (Tantrik)বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। যদিও কেলেঙ্কারি ঘটানোর পর বিপদ বুঝে চম্পট দিয়েছে তান্ত্রিক। তার খোঁজ করছে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, জখম শিশুর বাবা আসলে মধ্যপ্রদেশের (Madhya Pradesh) বাসিন্দা। তাঁর নাম শম্ভু ভিল। রাজস্থানে এসেছিলেন পরিযায়ী শ্রমিক (Migrant Labourer) হয়ে। শম্ভু এবং তাঁর স্ত্রী, দু’ জনেই ভিলওয়াড়ায় পরিযায়ী শ্রমিকের কাজ করতেন। তাঁদের সাত মাসের এক সন্তান রয়েছে। সম্প্রতি শিশুটি জ্বরে ভুগছিল। চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে তাকে ওষুধ খাওয়ান শম্ভুর স্ত্রী। কিন্তু তা সত্ত্বেও তার জ্বর কমছিল না। সর্দিকাশিতেও কষ্ট পাচ্ছিল শিশুটি। তা নিয়ে চিন্তিত ছিলেন শম্ভু ও তাঁর স্ত্রী।

[আরও পড়ুন: আলমারি ভরতি রাশি রাশি টাকা! আয়কর সংস্থার হানায় উদ্ধার ‘গুপ্তধন’ ঘিরে চাঞ্চল্য]

এরপর সন্তানকে নিয়ে এক ধর্মীয় উৎসবে যান শম্ভুর স্ত্রী। সেখানে এক তান্ত্রিকের সঙ্গে আলাপ হয় তাঁর। প্রতিবেশীরা পরামর্শ দেন, বাচ্চাটিকে একবার ওই তান্ত্রিকের কাছে নিয়ে যেতে, সে সুস্থ হয়ে উঠবে। সন্তানের মঙ্গলের কথা ভেবে প্রতিবেশীদের পরামর্শ মেনে নেন মা। অসুস্থ সন্তানকে নিয়ে তান্ত্রিকের কাছে যান। কচির গা তখন জ্বরে পুড়ছে প্রায়। সেই জ্বর কমানোর চেষ্টা না করে তান্ত্রিক গরম ইস্ত্রির (Hot iron) ছ্যাঁকা দেয় তাকে।

[আরও পড়ুন: ভারতের নতুন বিপদ ‘হরকত ৩১৩’ জেহাদি গোষ্ঠী! কাশ্মীরে বুনছে নাশকতার জাল]

এই দৃশ্য দেখেই প্রথমে চমকে উঠলেও আকস্মিকতা কাটিয়ে তীব্র প্রতিবাদ করেন শম্ভু ও তাঁর স্ত্রী। বেগতিক বুঝে বাচ্চাকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় তান্ত্রিক। সঙ্গে সঙ্গে জখম শিশুকে নিয়ে গিয়ে হাসপাতালে ভরতি করেন দম্পতি। তান্ত্রিকের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন। তান্ত্রিকের এই নৃশংস কর্মকাণ্ডের কথা শুনে গর্জে উঠেছেন স্থানীয়রা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে