৮ মাঘ  ১৪২৮  শনিবার ২২ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

সিপাই বিদ্রোহে অনুপ্রেরণা দিয়েছেন স্বামী বিবেকানন্দ! ‘হাস্যকর ভুল’ কেন্দ্রীয় সংস্থার, খোঁচা তৃণমূলের

Published by: Paramita Paul |    Posted: January 11, 2022 5:43 pm|    Updated: January 11, 2022 6:58 pm

TMC complaint against PIB gives misinformation about Swami Vivekananda | Sangbad Pratidin

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: রাত পোহালেই স্বামী বিবেকানন্দের জন্মবার্ষিকী। আর তার আগে তাঁর জীবন সম্পর্কিত তথ্য নিয়ে হাস্যকর ভুল করে বসল কেন্দ্রীয় সংস্থা প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরো (PIB)। বলল, “১৮৫৭ সালে সিপাই বিদ্রোহে অনুপ্রেরণা দিয়েছিলেন স্বামী বিবেকানন্দ ( Swami Vivekananda )।” অথচ তাঁর জন্ম হয়েছে সিপাই বিদ্রোহের ৬ বছর পর, ১৮৬৩ সালে।

পিআইবির এহেন ভুলের তীব্র সমালোচনা করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। টুইটারে পিআইবির ওই তথ্যের স্ক্রিনশট পোস্ট করে ঘাসফুল শিবির লিখেছে, “স্বামীজির জন্ম হয়েছে ১৮৬৩ সালে। আর সিপাই বিদ্রোহ হয়েছে ১৮৫৭ সালে। তিনি কীভাবে এই বিদ্রোহে অনুপ্রেরণা দিলেন, এটাই বোঝার চেষ্টা করছি?” পিআইবি-কে ট্যাগ করে কটাক্ষ করা হয়েছে, “এব্যাপারে আপনারা কোনও সাহায্য করতে পারেন?” এ নিয়ে অবশ্য কেন্দ্রের তরফে এখনও কোনও জবাব মেলেনি।

 

[আরও পড়ুন: করোনা আবহে গঙ্গাসাগর মেলায় প্রবেশে আরও কঠোর নিয়ম, নতুন শর্ত দিল হাই কোর্ট]

দেশজুড়ে অমৃত মহোৎসব পালন করছে কেন্দ্রীয় সরকার। সেই উদ্দেশ্যে নিউ ইন্ডিয়া সমাচার নামে একটি ই-ম্যাগাজিন প্রকাশ করেছে পিআইবি। নিজেদের টুইটার হ্যান্ডল থেকে সেই ম্যাগাজিনটি টুইটও করেছে তারা। ম্যাগাজিনটির মূল বিষয়, কীভাবে বদলেছে ভারত। স্বাধীনতা সংগ্রামে অংশ নেওয়া অপরিচিত ব্যক্তিদের পরিচয় প্রকাশ্যে আনা। সেই প্রসঙ্গেই ভক্তি আন্দোলনের উল্লেখ করেছে পিআইবি।

কেন্দ্রীয় সংস্থার তরফে লেখা হয়েছে, দেশজুড়ে চলা ভক্তি আন্দোলনে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের সন্ত-সন্ন্যাসীরা অংশ নিয়েছিলেন। অংশ গ্রহণ করেছিলেন স্বামী বিবেকানন্দ, শ্রী চৈতন্যদেবও। আর এই আন্দোলন ১৮৫৭ সালের সিপাই বিদ্রোহে অনুপ্রেরণা জুগিয়েছিল। এই তথ্য নিয়েই বিতর্ক দানা বেঁধেছে।

 

[আরও পড়ুন: Coronavirus: করোনা রুখতে আরও কড়া বিধিনিষেধের পথে রাজ্য! বন্ধ হতে পারে শপিং মল]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে