৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

৮ ঘণ্টার মধ্যে জওয়ান হত্যার ‘বদলা’, কাশ্মীরে খতম শীর্ষ লস্কর কম্যান্ডার-সহ দুই জেহাদি

Published by: Paramita Paul |    Posted: August 17, 2020 6:00 pm|    Updated: August 17, 2020 6:14 pm

An Images

মাসুদ আহমেদ, শ্রীনগর: সোমবার সাত সকালে জঙ্গি হামলায় শহিদ হয়েছিল দুই আধাসেনা জওয়ান। প্রাণ হারিয়েছিলেন এক পুলিশ কর্মী। এর মাত্র আট ঘণ্টার মধ্যে ‘বদলা’ নিল যৌথবাহিনী। গুলির লড়াইয়ে খতম দুই জঙ্গি (Terrorist)। তাদের মধ্যে একজন আবার লস্কর-ই-তৈবার (LeT) কম্যান্ডার রয়েছেন। উদ্ধার হয়েছে বিপুল অস্ত্র। 

বারামুল্লার চেক পোস্টে হামলার পরই জঙ্গিদের পিছনে ধাওয়া করেন আধা সেনা জওয়ান ও পুলিশ কর্মীরা। এরপরই যৌথবাহিনীর জওয়ানদের লক্ষ্য করে গুলি চলাতে শুরু করে জঙ্গিরা। কিন্তু হাল ছাড়েনি জওয়ানরাও। পালটা গুলি চালায় তাঁরা। দুপক্ষের মধ্য টানা সাত ঘণ্টা গুলির লড়াই চলে।  জানা গিয়েছে, ঘটনাস্থল থেকে দুজনের দেহ উদ্ধার হয়েছে। তাদের কাছ থেকে দুটি পিস্তল, একে-৪৭ রাইফেল-সহ বিপুল আগ্নোয়াস্ত্র উদ্ধার হয়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর, হামলাপ নেপথ্য ছিল লস্কর-ই-তৈবার জঙ্গিরা। তাদের পিছনে ধাওয়া করে দুই জঙ্গিকে খতম করে পুলিশ মৃত দুই জঙ্গির মধ্যে একজনের নাম সাজ্জাদ ওরফে হায়দার। বাকিদের খোঁজে এখনও তল্লাশি চলছে বলে খবর। 

 

[আরও পড়ুন : কাশ্মীরে ফের জঙ্গি হামলা, শহিদ দুই জওয়ান ও এক পুলিশ কর্মী]

জম্মু কাশ্মীরে পুলিশের আইজি বিজয় কুমার জানান, লস্কর কম্যান্ডার সাজ্জাদকে নিকেশ করা যৌথবাহিনীর বিরাট সাফল্য। তৃতীয় জঙ্গির খোঁজে তল্লশি অভিযান এখনও চলছে। প্রসঙ্গত, গত তিনদিনে জঙ্গি হামলায় পাঁচ জওয়ান শহিদ হয়েছেন। মূলত চেকপোস্টগুলিতে নিরাপত্তারক্ষীর সংখ্যা কম থাকায় জঙ্গিরা সেগুলিকেই টার্গেট করছে। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement