BREAKING NEWS

১৪ কার্তিক  ১৪২৭  শনিবার ৩১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

১৩ কোটি টাকার হেরোইন-সহ পাঞ্জাবে গ্রেপ্তার পাকিস্তানের মদতপুষ্ট দুই চোরাকারবারি

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: September 24, 2020 9:26 pm|    Updated: September 24, 2020 9:26 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে ফের বড়সড় সাফল্য পেল পাঞ্জাব পুলিশ। বৃহস্পতিবার পাকিস্তান সীমান্ত সংলগ্ন একটি এলাকা থেকে ১৩ কিলো হেরোইন-সহ দুই চোরাকারবারিকে গ্রেপ্তার করল তারা। ঘটনাটি ঘটেছে তরণ তারণ জেলায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, তরণ তারণ (Tarn Taran) জেলায় অবস্থিত পাকিস্তান সীমান্ত দিয়ে প্রায়শই মাদক ও অস্ত্র পাকিস্তান থেকে ভারতে পাচারের অভিযোগ ওঠে। মাঝে মাঝে অভিযান চালিয়ে অনেককে গ্রেপ্তারও করেছেন নিরাপত্তারক্ষীরা। বৃহস্পতিবার বিশেষ সূত্রে খবর পেয়ে ওই জেলার খেম কারন (Khem Karan) সেক্টরে অভিযান চালানো হয়। সেসময়ই ১৩ কিলো হেরোইন (heroin)-সহ গ্রেপ্তার হয় দুই ব্যক্তি।

[আরও পড়ুন: বেঙ্গালুরুর হিংসার ঘটনার তদন্তে দিনভর তল্লাশি NIA’র, গ্রেপ্তার ‘মূল অভিযুক্ত’ ]

পাঞ্জাব পুলিশ সূত্রে খবর, পাকিস্তানের মদতপুষ্ট ওই দুই চোরাকারবারির সঙ্গে আরও একজন ছিল। তল্লাশির সময় ২ জনকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হলেও তৃতীয়জন পালিয়ে যায়। তার সন্ধানে খেমা কারন এলাকা-সহ গোটা তরণ তারণ জেলাজুড়ে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্যে, গত ২৬ জুলাই তরণ তারণ জেলার পাকিস্তানের সীমান্ত সংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত একটি বিএসএফ পোস্টের কাছে অভিযান চালায় জলন্ধর গ্রামীণ পুলিশের একটি দল। ঘটনাস্থল থেকে দুই চোরা কারবারি-সহ রাজেন্দ্র প্রসাদ নামে এক বিএসএফ কনস্টেবলকেও গ্রেপ্তার করা হয়। ধৃতদের জেরা করে জানা যায়, তরণ তারণ জেলার নারলি গ্রামের বাসিন্দা ও কুখ্যাত চোরা কারবারি সৎনাম সিংয়ের সঙ্গে কাজ করত তারা। পাকিস্তান থেকে আসা হেরোইন ও অস্ত্র সীমান্ত পার করিয়ে ভারতে থাকা পাচারকারীদের হাতে পৌঁছে দিত। তদন্তের পর গত ৬ আগস্ট সেই কনস্টেবলকে চাকরি থেকে বহিষ্কার করে বিএসএফ।

[আরও পড়ুন: ‘কাশ্মীরিরা নিজেদের ভারতীয় মনে করেন না, চিনা শাসনই তাঁদের পছন্দ’, বিস্ফোরক ফারুক আবদুল্লা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement