BREAKING NEWS

১৩ কার্তিক  ১৪২৭  শুক্রবার ৩০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

প্রয়োজনে হবে ৬ দিন ক্লাস, কমবে ছুটি, পড়ুয়াদের স্বার্থে নয়া গাইডলাইন জারি UGC’র

Published by: Sayani Sen |    Posted: September 25, 2020 7:27 pm|    Updated: September 25, 2020 7:27 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

দীপঙ্কর মণ্ডল: করোনা (Coronavirus) পরিস্থিতিতে গত মার্চ থেকে বন্ধ রয়েছে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়। নভেম্বরে কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস শুরু হবে বলেই টুইটে জানিয়ে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী। তবে ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র ভাইরাস হানার প্রভাবে চলতি শিক্ষাবর্ষে পঠনপাঠনের অভাবনীয় ক্ষতি হয়েছে। কীভাবে এই পরিস্থিতি সামাল দেওয়া হবে, সেই সংক্রান্ত গাইডলাইন জারি করল UGC।

শুক্রবার ইউজিসির তরফে তিন পাতার মোট আট দফা গাইডলাইন প্রকাশ করা হয়। ওই গাইডলাইনে বলা হয়েছে
১. ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষ এবং ২০২১‐২২ শিক্ষাবর্ষের পঠন-পাঠনের ক্ষতি আটকাতে প্রয়োজন হলে সপ্তাহে ৬ দিন ক্লাস নিতে হবে কলেজ (College) ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকে। কাটছাঁট করতে হবে এককালীন ছুটিগুলিকেও।

২. শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি মনে করলে প্রভিশনাল অ্যাডমিশন করতে পারে। প্রয়োজনে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত যাবতীয় নথি গ্রহণ করতে পারবে।

৩. প্রবেশিকা বা মেধাভিত্তিক ছাত্র ভরতির প্রক্রিয়া অক্টোবর মধ্যেই শেষ করতে হবে। তবে বাকি থাকা আসনে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত পড়ুয়া ভরতি নেওয়া যাবে।

৪. স্নাতক ও স্নাতকোত্তর স্তরে পয়লা নভেম্বর থেকে প্রথম সেমিস্টার বা প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু করতে হবে। তবে যদি কোনও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ফলপ্রকাশ দেরিতে হয় সেক্ষেত্রে ১৮ নভেম্বরের পর ক্লাস শুরু করতে পারে। তবে এই সময়কালে অনলাইন কিংবা অফলাইনে পঠনপাঠন চালু রাখতে হবে।

[আরও পড়ুন: GST সংক্রান্ত আইন লঙ্ঘন কেন্দ্রের! প্রকাশ্যে ক্যাগের বিস্ফোরক রিপোর্ট]

৫. কোভিড পরিস্থিতিতে অর্থনীতির হাল সকলেরই অত্যন্ত খারাপ। সেকথা মাথায় রেখে যে সমস্ত ছাত্রছাত্রীর আবেদন বাতিল হবে তাদের পুরো টাকা ফেরত দিতে হবে।

৬. সমস্ত রকম কোভিড বিধি মেনেই ক্লাস নিতে হবে। সেক্ষেত্রে ইউজিসির প্রকাশিত ২৯ এপ্রিল কিংবা ৬ জুলাইয়ের বিধি মেনে চলতে হবে।

৭. ছাত্রছাত্রীদের স্বার্থের কথা মাথায় রেখে করোনাকালে প্রয়োজন হলে বিশ্ববিদ্যালয়গুলি (University) নিয়ম বদল করতে পারে।

৮. যদি বর্তমান পরিস্থিতিতে ছাত্রছাত্রী ভরতির ক্ষেত্রে কোনও সমস্যা হয় তবে ছাত্র ভরতির প্রক্রিয়ায় বদল আনতে পারে।

যদিও ইউজিসি তরফের জারি করা গাইডলাইনের প্রেক্ষিতে এখনও পর্যন্ত রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

[আরও পড়ুন: রক্ষকই ভক্ষক! বাজেয়াপ্ত গাঁজা বিক্রি করে চূড়ান্ত বিপাকে ৪ পুলিশকর্মী]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement