৪ কার্তিক  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “বাংলা তো গুজরাট হয়েই গিয়েছে, আগামীতে অযোধ্যা, বারাণসী হবে।” একথাই বলা হয়েছে শিবসেনার মুখপত্র সামনায়। কিছুদিন ধরেই পশ্চিমবঙ্গে অশান্তি সৃষ্টির জন্য বিজেপিকে দায়ী করছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই রাজ্যকে গুজরাট করতে দেব না বলেও মন্তব্য করছিলেন। এর প্রেক্ষিতেই তাঁকে কটাক্ষ করা হল শিব সেনার মুখপত্রে।

[আরও পড়ুন- চিকিৎসকদের আন্দোলনের প্রভাব ভিনরাজ্যেও, শুক্রবার দেশজুড়ে কর্মবিরতি এইমসে!]

উদ্ধব ঠাকরের নেতৃত্বাধীন শিব সেনার মুখপত্রে বাংলার ঘুমন্ত হিন্দুদের জাগিয়ে তোলার জন্য তৃণমূলনেত্রীকেই কৃতিত্ব দেওয়া হয়েছে। কটাক্ষ করে বলা হয়েছে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্যই আজ অশান্ত হয়ে উঠেছে পশ্চিমবঙ্গের পরিস্থিতি। ক্রমশ কমছে তাঁর জনপ্রিয়তা। আর এর জন্য দায়ী উনি নিজেই। ওনার জন্যই জেগে উঠেছেন বাংলার ঘুমিয়ে থাকা হিন্দুরা।

বলা হয়েছে, বাংলাকে গুজরাট বানাতে দেব না বলে উনি কী বোঝাতে চেয়েছেন? বাংলা তো গুজরাট হয়েই গিয়েছে। আগামিকাল ভগবান রাম যদি রেগে যান তাহলে হয়তো অযোধ্যা বা বারাণসীতে পরিণত হবে।

[আরও পড়ুন- বিজেপি সভাপতি থাকছেন অমিত শাহই! দলীয় বৈঠকের আগে জল্পনা]

জয় শ্রীরাম‘ শ্লোগান নিয়ে এরাজ্যে যে বিতর্ক তৈরি হয়েছে তার জন্যও দলীয় মুখপত্রে তৃণমূল সুপ্রিমোর প্রবল সমালোচনা করে শিব সেনা। মুখ্যমন্ত্রীর জন্যই পশ্চিমবঙ্গে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান দেওয়া অপরাধ হিসেবে দেখা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করে। বলে, জয় শ্রীরাম-এর পরিবর্তে জয় হিন্দ পোস্টার মারছে তৃণমূল। আসলে অস্বস্তিতে থেকেই এই কাণ্ড ঘটাচ্ছে তারা।

বাংলায় গোলমাল বাঁধিয়ে বিজেপি অচলাবস্থা সৃষ্টির চেষ্টা করছে বলে সোমবার অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের পক্ষ থেকে রাজ্যকে যে অ্যাডভাইজারি নোট পাঠানো হয়েছে তারও সমালোচনা করে তৃণমূল। এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে চিঠিও লেখেন তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। অ-বিজেপি সরকারকে ফেলে দেওয়ার জন্য চক্রান্ত করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ তোলা হয়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং