BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘উনিই আমার সন্তানের বাবা’, বিজেপি বিধায়কের DNA পরীক্ষার দাবিতে সরব উত্তরাখণ্ডের মহিলা

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: August 15, 2020 2:28 pm|    Updated: August 15, 2020 2:31 pm

An Images

মহেশ সিং নেগি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কয়েকমাস আগে উত্তরপ্রদেশের প্রভাবশালী ব্যক্তি চিন্ময়ানন্দের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে ভিডিও প্রকাশ করেছিলেন এক যুবতী। বিষয়টি নিয়ে শোরগোল হওয়ায় প্রাক্তন ওই বিজেপি নেতাকে গ্রেপ্তার করে যোগী প্রশাসন। বর্তমানে সেই মামলা আদালতের বিচারাধীন। উলটো দিকে অভিযোগকারিণীকেও ব্ল্যাকমেল করে টাকা তোলা অভিযোগে গ্রেপ্তার করে মামলা চালু করা হয়েছিল। চিন্ময়ানন্দের বিরুদ্ধে মুখ খোলার জন্যই ওই মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয় বলে অভিযোগ। এবার প্রায় সেই একই ঘটনা ঘটল উত্তরাখণ্ডে!

সন্তানের পিতৃত্বের অধিকার চাওয়ায় এক মহিলার বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে ব্ল্যাকমেল করে টাকা আদায়ের চেষ্টা করার অভিযোগ করলেন উত্তরাখণ্ডের এক বিজেপি বিধায়কের স্ত্রী। আর তার কিছুক্ষণ বাদেই সোশ্যাল মিডিয়াতে বিজেপি বিধায়ক ও তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে সরব হলেন নির্যাতিতা। সন্তানের পিতৃত্বের স্বীকৃতির জন্য ওই বিধায়কের ডিএনএ (DNA) পরীক্ষারও দাবি জানালেন।

[আরও পড়ুন: স্বাধীনতা দিবসের আগে পাঞ্জাবের সরকারি দপ্তরে খলিস্তানের পতাকা! অস্বস্তিতে সরকার ]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবার দুপুরে দেরাদুনের নেহেরু কলোনি পুলিশ স্টেশনে আলমোড়া (Almora) ‘র দারাহাট বিধানসভার বিধায়ক মহেশ সিং নেগি (Mahesh Singh Negi)’র স্ত্রী রীতা একটি তোলাবাজির অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগপত্রে তিনি উল্লেখ করেছেন, একজন বিবাহিত মহিলা ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা বিজেপি বিধায়ক ও তাঁর স্ত্রীকে ব্ল্যাকমেল করছে। ৫ কোটি টাকা না দিলে মিথ্যে ধর্ষণের মামলা দায়ের করে বিজেপি বিধায়কের রাজনৈতিক কেরিয়ার শেষ করে দেবে বলে হুমকি দিচ্ছে। এমনকী তাঁদের সন্তানকে খুন করবে বলছে।

এর কিছুক্ষণ বাদেই সন্ধ্যার সময় সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিওবার্তায় ওই বিবাহিত মহিলা অভিযোগ করেন, গত দু’বছর ধরে লাগাতার বিজেপি বিধায়ক মহেশ সিং নেগি তাঁকে ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতন করেছে। আর এই কাজে সাহায্য করেছে বিধায়কের স্ত্রী। এর ফলে তাঁর একটি মেয়েও হয়েছে। এখন মেয়ের পিতৃত্বের অধিকার দাবি করায় তাঁকে খুনের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি তোলাবাজির মিথ্যে মামলাও দায়ের করা হয়েছে। তিনি যে সত্যি বলছেন তার প্রমাণ দেওয়ার জন্য ওই বিজেপি বিধায়কের ডিএনএ পরীক্ষার দাবিও জানান।

[আরও পড়ুন: এক-দু’বার নয়, অন্তত ৩৫ বার লালকেল্লার ভাষণে এই শব্দ বললেন প্রধানমন্ত্রী]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement