BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

আত্মীয়ের সঙ্গে প্রেম, রাজস্থানে যুগলকে পিটিয়ে মারল পরিবার

Published by: Paramita Paul |    Posted: June 7, 2020 4:22 pm|    Updated: June 7, 2020 6:12 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আত্মীয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়েছিল। এই ‘অপরাধে’ দিনে দুপুরে মাথার লোহার রড দিয়ে মেরে প্রেমী যুগলকে খুন করল পরিবারের সদস্যরা। পরিবারের সম্মান রক্ষার্থে (Honour Killing) এই খুন করা হয়েছে বলে দাবি অভিযুক্তদের। রাজস্থানের ঢোলপুর জেলার এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। মৃত যুবকের দাদু অভিযুক্ত ২৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ঢোলাপুরের অনিতা নিসাদ ও বান্টু নিসাদ ঢোলাপুরেরই একই গ্রামের বাসিন্দা। অনিতাদের একটি ই-মিত্র দোকান আচে গ্রামে। সেখানেই কাজ করতেন বান্টু। তারা আবার আকের অপরের নিকট আত্মীয়ও বটে। কিন্তু সামাজিক রীতিনীতিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। দুই পরিবারেরই সম্পর্ক নিয়ে আপত্তি ছিল। কিন্তু তাতে তাঁরা পাত্তা দেননি। সেই সম্পর্কে এমন করুণ পরিণতি হবে তা বোধহয় ভাবতেও পারেননি বছর কুড়িরও ওই প্রেমিক-প্রেমিকা।

[আরও পড়ুন : করোনায় মৃতের দেহ কবরে ছুঁড়ে ফেলছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা, ভয়াবহ ছবি পুদুচেরিতে]

পুলিশ সূত্রে খবর, শনিবার দুপুর গ্রামেরই একটি বাড়িতে বসেছিলেন অনিতা ও বান্টু। সেইসময় অনিতার পরিবারের সদস্যরা চড়াও হয়। পরিবারের মহিলারা তাদের ঘিরে দাঁড়িয়েছিল। আর সেই সময় পরিবারের বাকিরা লোহার রড দিয়ে দুজনের মাথায় আঘাত করে। ঘটনাস্থলে প্রাণ হারান বান্টু। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় অনিতার মৃত্যু হয়। বান্টুর দাদু অনিতার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে। রাজস্থানে এইধরণের ঘটনা অবশ্য নতুন নয়। একবিংশ শতাব্দিতে দাঁড়িয়েও পরিবারের সম্মান রক্ষার্থে প্রায়শই যুবক-যুবতীদের বলি দেওয়া হয়।

[আরও পড়ুন :সোমবার থেকে খুলছে দিল্লির রেস্তরাঁ-ধর্মীয় স্থান, হাসপাতালে ভরতি নিয়ে বড়সড় সিদ্ধান্ত কেজরিওয়ালের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement