২৯ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

অর্ণব আইচ:  নরেন্দ্রপুরে এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে ডাকাতির ঘটনায় মূলচক্রী-সহ তিনজন বাংলাদেশি দুষ্কৃতীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আবার কলকাতায় ঘুরতে এসে জাগুয়ারের ধাক্কায় মারা গিয়েছেন পড়শি দেশের এক তরুণ ও তরুণী। শহরের বাংলাদেশের নাগরিকদের আনাগোনা বাড়ছে। বেআইনিভাবে এদেশে প্রবেশের অভিযোগে কলকাতার বেনিয়াপুকুর থেকে পড়শি দেশের পাঁচজন নাগরিককে গ্রেপ্তার করল কলকাতা পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স বা এসটিএফ। গ্রেপ্তার করা হয়েছে তিন ভারতীয়কেও। তদন্তকারীদের দাবি, ভিসা-পাসপোর্ট ছাড়াই ওই বাংলাদেশিদের শহরে আসা ও থাকার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন ওই তিনজন। 

[আরও পড়ুন: চলন্ত বাসে যৌনাঙ্গ দেখিয়ে মহিলার শ্লীলতাহানি! চাঞ্চল্য কলকাতায়]

কাজের সুবাদে কিংবা চিকিৎসা করাতে বাংলাদেশ থেকে অনেকে আসেন এ শহরে। ইদানিং আবার সপ্তাহান্তে ছুটিতে নেহাতই বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে আনন্দ করতে কলকাতায় চলে আসছেন বাংলাদেশের অনেক যুবতী-যুবতী। তবে পড়শিদেশ থেকে যাঁরা এ শহরে কিংবা রাজ্যে আসেন, তাঁদের সকলেরই যে পাসপোর্ট-ভিসা থাকে, এমনটা কিন্তু নয়। লালবাজারের গোয়েন্দাদের বক্তব্য, বাংলাদেশ থেকে অনেকে বেআইনিভাবে সীমান্ত পেরিয়ে ঢুকে পড়ছেন এ রাজ্যে। কলকাতা ও লাগোয়া এলাকায় স্থানীয় বসবাস করছেন এমনকী, বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজেও জড়িয়ে পড়ছেন। বস্তুত, নরেন্দ্রপুরে ব্যবসায়ীর বাড়িতে ডাকাতির ঘটনায় যে তিনজন বাংলাদেশি দুষ্কৃতী ধরা পড়েছে, তারা প্রয়োজনীয় নথি ছাড়াই কলকাতায় এসেছে বলে জানা গিয়েছে।

জানা গিয়েছে,  গোপনসূত্রে কলকাতা পুলিশের এসটিএফের আধিকারিকরা খবর পান, কলকাতার বেনিয়াপুকুরে আস্তানা গেড়েছে পাঁচজন বাংলাদেশ নাগরিক। তাদের কারও এদেশে আসা কিংবা থাকার জন্য প্রয়োজনীয় নথি নেই। মঙ্গলবার গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে লালবাজারের গোয়েন্দারা। ধৃতদের মধ্যে চারজনেরই বাড়ি খুলনায়, আর এক যশোরের বাসিন্দা। আর এই বাংলাদেশিদের সীমান্ত পেরোনোয় সাহায্য করার অভিযোগে তিনজন ভারতীয়কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

[ আরও পড়ুন: ব্যস্ত সময়ে দমদম স্টেশনে মেট্রো বিভ্রাট, দরজা খুলেই ছুটল এসি রেক]

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং