BREAKING NEWS

১৩ কার্তিক  ১৪২৭  শুক্রবার ৩০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

মহুয়া বনাম বাবুলের আইনি লড়াই তীব্র, মানহানি মামলা খারিজের দাবিতে হাই কোর্টে মন্ত্রী

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: September 25, 2020 10:35 am|    Updated: September 25, 2020 3:44 pm

An Images

শুভঙ্কর বসু: সাংসদ ও বিধায়কদের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলার শুনানির জন্য বিশেষ বেঞ্চ তৈরি করেছিল কলকাতা হাই কোর্ট। বৃহস্পতিবার সেই বিশেষ বেঞ্চে হয়ে গেল প্রথম মামলার শুনানি। বিজেপি সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র (Babul Supriyo) বিরুদ্ধে তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্রর (Mahua Moitra) দায়ের করা মানহানির মামলা খারিজের দাবিতে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন মন্ত্রী।

বৃহস্পতিবার কলকাতা হাই কোর্টের (Calcutta High Court) বিচারপতি বিবেক চৌধুরির এজলাসে সেই মামলার শুনানি হয়। শুনানিতে বাবুল সুপ্রিয়র তরফে আইনজীবী অয়ন ভট্টাচার্য দাবি করেন, বেসরকারি টিভি চ্যানেলে টক শো চলাকালীন মন্ত্রী যে মন্তব্য করেছিলেন, তার প্রেক্ষিতে তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্রর দায়ের করা মানহানির মামলাটি (Defamation Case) গ্রহণযোগ্যই নয়। বিচারপতি তাঁর এই বক্তব্য শোনার পর আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করেছে।

[আরও পড়ুন: লকডাউনে বন্ধ স্কুলে জন্মাচ্ছে ডেঙ্গুর লার্ভা, কড়া পদক্ষেপ কলকাতা পুরসভার]

মহুয়া মৈত্রর অভিযোগ, বছর দুই আগে বেসরকারি সর্বভারতীয় এক টেলিভিশন চ্যানেলে একটি টক শো চলাকালীন তাঁকে উদ্দেশ্য করে অশালীন মন্তব্য করেছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। মহুয়াদেবী আলিপুর থানায় এ নিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে আগে দু’‌বার বাবুল সুপ্রিয়কে তলব করা হয়েছিল। কিন্তু তিনি তদন্তকারীদের সামনে হাজির হননি।

[আরও পড়ুন: আইপিএল শুরু হতেই কলকাতায় বড়সড় বেটিং চক্রের হদিশ, রাতভর তল্লাশিতে গ্রেপ্তার ৯]

এরপর বাবুল সুপ্রিয়র বিরুদ্ধে আলিপুর আদালতে চার্জশিট পেশ করে পুলিশ। ১০ মার্চ আলিপুর আদালত কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র বিরুদ্ধে জামিনযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে। গ্রেপ্তারি এড়াতে কলকাতা হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন বাবুল। বিচারপতি জয়মাল্য বাগচীর আলিপুর আদালতের সেই নির্দেশে স্থগিতাদেশ জারি করেছিলেন। বিচারপতি বাগচীর সেই নির্দেশে আপাত স্বস্তি পেলেও মহুয়া মৈত্রের দায়ের করা অভিযোগটি এখনও রয়েছে। সেই মামলা থেকে অব্যাহতি পেতে ফের উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement