৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

অবশেষে স্বস্তিতে গ্রাহকরা, বিদ্যুতের বিল নিয়ে বড় ঘোষণা CESC’র

Published by: Paramita Paul |    Posted: July 19, 2020 9:18 pm|    Updated: July 19, 2020 10:02 pm

An Images

মলয় কুন্ডু ও ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: অবশেষে স্বস্তি পেলেন CESC’র গ্রাহকরা। গত দু’মাসের বকেয়া বিদ্যুতের ইউনিটের টাকা আপাতত মেটাতে হবে না তাঁদের। বদলে শুধুমাত্র জুন মাসে ব্যবহার করা বিদ্যুতের বিল মেটালেই চলবে বলে রবিবার জানাল CESC। তবে শিল্প ও বাণিজ্য ক্ষেত্রেই এই ছাড় মিলবে না বলেই সূত্রের খবর। বেসরকারি বিদ্যুত সরবরাহকারী সংস্থার এই সিদ্ধান্তকে ‘কলকাতার জয়’ বলে চিহ্নিত করেছেন যুব তৃণমূলের সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার সন্ধেবেলা টুইট করে তিনিই এই খবর দেন। পাশাপাশি বিদ্যুতের বিল জমা দেওয়ার সময়সীমাও বাড়ানো হয়েছে বলে খবর। 

প্রসঙ্গত, জুলাই মাসে ওই সংস্থার পাঠানো বিল দেখে মাথায় হাত পড়েছিল মধ্যবিত্তদের। কারোর বিল এসেছে ১০ হাজার তো কারেরা আবার ২০ হাজার। একে তো লকডাউনে কাজকর্ম নেই তেমন। তারউপর বিদ্যুতের বিলের বহর দেখে মাথায় হাত পড়েছিল কলকাতা ও তৎ সংলগ্ন এলাকার আমজনতার। এই বিভ্রাট থেকে রেহাই পাননি খোদ বিদ্যুৎমন্ত্রীও। এ নিয়ে তিনি নিয়ে CESC’র সঙ্গে কথা বলেন। সেই সময় ওই সংস্থার তরফে জানানো হয়, করোনা সংক্রমণের জেরে মার্চ থেকে লকডাউন (Lockdown) জারি করা হয়। তার ফলে বেশ কয়েকমাস বন্ধ ছিল মিটার রিডিং নেওয়া। স্বাভাবিকভাবেই এপ্রিল ও মে মাসে অনুমানের ভিত্তিতে বাৎসরিক গড়ে বিদ্যুৎ ব্যবহারের নিরিখে বিল পাঠানো হয়েছে। তবে তা বিদ্যুৎ ব্যবহারের তুলনায় অনেক কম। জুন থেকে ফের মিটার রিডিং শুরু হয়েছে। বাড়তি ইউনিট বিলে যুক্ত হয়েছে। তার উপর আবার গ্রীষ্মকালে বিদ্যুৎ খরচ হয় তুলনামূলক বেশি। তাই অতিরিক্ত বিল দেখে বিরক্ত হচ্ছেন গ্রাহকরা।

[আরও পড়ুন : শিয়ালদহ স্টেশনের কাছে বেলাইন হাসনাবাদ ‘স্টাফ স্পেশ্যাল’, প্রাণে বাঁচলেন রেলকর্মীরা]

এ নিয়ে শহরে জায়গায় জায়গায় বিক্ষোভ দেখায় আমজনতা। সরকারের তরফেও সিইএসসিকে কড়া বার্তা দেওযা হয়। এরপরই রবিবার সংস্থার তরফে জানানো হয়, এপ্রিল ও মে মাসের অতিরিক্ত টাকা আপাতত মেটাতে হবে না। শুধুমাত্র জুনে ব্যবহার করা বিদ্যুতের মাশুলই চোকাতে হবে গ্রাহককে। এরপরই টুইট করে কলকাতাবাসীকে অভিনন্দন জানান ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে ইতিমধ্যে অনেকেই বিল মিটিয়ে দিয়েছেন, তাঁদের থেকে নেওয়া বাড়তি টাকা কীভাবে ফেরত দেওয়া হবে, বা তা পরের বিল থেকে বাদ দেওয়া হবে কিনা, সে সম্পর্কে কিছুই জানানো হয়নি। 

[আরও পড়ুন : ‘অভিযুক্তের ফাঁসি চাই, নাহলে শেষ দেখে ছাড়ব’, চোপড়া ধর্ষণকাণ্ডে হুঁশিয়ারি অগ্নিমিত্রার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement