৮ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ২৬ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দু’দিন কেটে গেলেও স্বাভাবিক হয়নি এনআরএস হাসপাতালের পরিষেবা। দাবি না মেটায় আজ, বৃহস্পতিবারও কর্মবিরতি পালন করছেন জুনিয়র ডাক্তাররা। তার প্রভাব পড়েছে চিকিৎসায়। রোগীদের ঠিকমতো দেখভাল হচ্ছে না, এই দাবি তুলে সকালে এনআরএসের সামনে অবরোধ করেন হাসপাতালে ভরতি রোগীর আত্মীয়রা। ঘটনায় সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপের দাবি তোলেন তাঁরা।

রোগীর পরিজনদের অভিযোগ, জুনিয়র ডাক্তারদের কর্মবিরতির ফলে রোগীর ঠিকমতো চিকিৎসা হচ্ছে না। হাসপাতালে আত্মীয়দের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। এই নিয়ে এনআরএসের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন রোগীর আত্মীয়রা। অবরোধ করা হয় এজেসি বোস রোড। প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তাঁরা। তাঁদের দাবি, চিকিৎসার জন্য দূর-দূরান্ত থেকে হাসপাতালে আসেন রোগীরা। অথচ এখন কর্মবিরতির জেরে তাঁদের চিকিৎসা হচ্ছে না। জুনিয়র ডাক্তারদের কর্মবিরতির জেরে ভুগতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। এই ঘটনায় সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপের দাবি তুলেছেন রোগীর আত্মীয়রা। অবশেষে  এসে বিক্ষোভকারীদের হটিয়ে দেয় পুলিশ। কিন্তু ততক্ষণে বিক্ষোভের আঁচ ছড়িয়ে পড়েছে এসএসকেএম হাসপাতালেও। সেখানেও হাসপাতালের বাইরে রোগীর আত্মীয়রা বিক্ষোভ দেখায় বলে খবর।

[ আরও পড়ুন: জুনিয়র ডাক্তারদের দাবি নিয়ে কাটল না জট, আজও স্তব্ধ এনআরএস ]

মঙ্গলবার রাতে রোগী মৃত্যু ঘিরে অশান্তি শুরু হয় এনআরএস হাসপাতালে। চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তুলে হাসপাতালে ভাঙচুর চালান রোগীর পরিজনরা। জুনিয়র ডাক্তারদের উপরও হয় হামলা। মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয় জুনিয়র ডাক্তার পরিবহ মুখোপাধ্যায়ের। এই ঘটনার জেরে মঙ্গলবার দুপুর থেকে কর্মবিরতি শুরু করেন জুনিয়র ডাক্তাররা। মাঝে একটা দিন কেটে গেলেও কর্মবিরতি ওঠেনি। উপরন্তু চিকিৎসকদের নিরাপত্তার দাবিতে বুধবার ১২ ঘণ্টার কর্মবিরতি পালন করা হয় কলকাতা ও জেলার হাসপাতাল ও বেশিরভাগ নার্সিংহোমগুলিতে। বন্ধ ছিল এমার্জেন্সিও। ফলে দুর্ভোগে পড়তে হয় রোগীদের।

ঘটনার রেশ কাটেনি বৃহস্পতিবারও। এনআরএস হাসপাতালেও আজ তো কর্মবিরতি চলছে। আউটডোরের পাশাপাশি এখানে বন্ধ রয়েছে এমার্জেন্সি বিভাগও। এছাড়া এসএসকেএম, ন্যাশনাল মেডিক্যাল এবং উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে বন্ধ রয়েছে আউটডোর পরিষেবা। রাজ্যের একাধিক হাসপাতালে এভাবে পরিষেবা বন্ধ থাকায় সমস্যায় পড়েছেন রোগীরা।

[ আরও পড়ুন: ২৪ ঘন্টার মধ্যে মোহভঙ্গ, বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরলেন একাধিক পঞ্চায়েত সদস্য ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং