BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য, অজয় নায়েককে অপসারণের দাবি তৃণমূলের

Published by: Tanujit Das |    Posted: April 21, 2019 10:17 am|    Updated: April 23, 2019 5:54 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে করা বিস্ফোরক মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে কমিশন নিয়োজিত বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েকের অপসারণের দাবি জানাল তৃণমূল৷ শনিবার এই মর্মে নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগপত্র পেশ করেছে রাজ্যের শাসকদল৷ যাতে অভিযোগ করা হয়েছে, পশ্চিমবঙ্গের বিষয়ে মানহানিকর মন্তব্য করেছেন কমিশন নিযুক্ত বিশেষ নির্বাচনী পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক৷ এই কাজের জন্য তাঁকে অপসারিত করা হোক৷

[ আরও পড়ুন: নিরাপত্তার দাবিতে ভোটকর্মীদের বিক্ষোভ, চেতলা গার্লস স্কুলে উত্তেজনা ]

শনিবার রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে উষ্মা প্রকাশ করেন অজয় নায়েক৷ কার্যত বিরোধীদের দাবিতে সিলমোহর দিয়ে বলেন, ‘‘দশ বছর আগে নির্বাচনের সময় বিহারে যে পরিস্থিতি ছিল, এখন এরাজ্যে সেই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। সেসময় বিহারের ভোটেও এত সংখ্যক কেন্দ্রীয় বাহিনীকে কাজে লাগাতে হত। এখন এরাজ্যেও তাই করতে হচ্ছে। বিহারে এখন খুব কম এলাকায় কেন্দ্রীয় বাহিনী ব্যবহার করতে হচ্ছে।’’ বিশেষ পর্যবেক্ষক যখন একথা বলছেন, তখন তাঁর পাশেই বসে ছিলেন সিইও আরিজ আফতাব৷ এখানেই শেষ নয়, বিহারের মতো পশ্চিমবঙ্গের পরিস্থিতিও কীভাবে পরিবর্তন করা যায়, তার উপায়ও বাতলে দেন তিনি৷ বলেন, ‘‘ওখানকার সাধারণ মানুষ এবং রাজনৈতিক দলগুলি মিলিত ভাবে পরিস্থিতির বদল ঘটিয়েছে৷’’

[ আরও পড়ুন: ‘বাংলার পক্ষে ভোট দিন’, নতুন ভোটারদের জন্য নয়া ভিডিও তৃণমূলের ]

নির্বাচন কমিশনের বিশেষ পর্যবেক্ষকের এই মন্তব্যের পরেই তাঁর বিরুদ্ধে তেড়েফুঁড়ে উঠেছে শাসকদল৷ এই মন্তব্যের দ্বারা রাজ্যকে অপমান করেছেন অজয় নায়েক, এমনই অভিযোগ করেছেন তৃণমূল নেতারা৷ শনিবার কমিশনের তরফে ঘোষণা করা হয়েছে, তৃতীয় দফার ভোটে ৯২ শতাংশ বুথেই থাকছে কেন্দ্রীয় বাহিনী৷ এরপরই রাজ্যে এত বেশি কেন্দ্রীয় বাহিনী ব্যবহার করা নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছে তৃণমূল৷ এই মর্মে কমিশনে চিঠিও পাঠিয়েছেন দলের শীর্ষ নেতা সুব্রত বক্সী। সেই চিঠিতেই অজয় নায়েকের বিস্ফোরক মন্তব্যের বিষয়ে অভিযোগ জানানো হয়েছে৷ এবং তাঁর অপসারণের দাবি করা হয়েছে৷ এমনকী, অজয় নায়েকের কড়া সমালোচনা করেছেন মেয়র তথা মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম৷ তিনি বলেন, ‘‘উনি আরএসএসের মতো কাজ করছেন৷ রাজনৈতিক দলের মুখপাত্রের মতো কথা বলছেন৷ এতে কিছু যায় আসে না৷ এবারের নির্বাচনে বাংলা থেকে তৃণমূল বিয়াল্লিশে ৪২টি আসনই পাবে৷ বিরোধীদের উসকানিতেই উনি এই সমস্ত মন্তব্য করছেন৷’’

বিশেষ পর্যবেক্ষকের কাজের বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছেন শিক্ষামন্ত্রী ও তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও৷ তিনি বলেন, ‘‘উনি কীভাবে বাংলার ৯২% বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী আনার কথা বলছেন? এটা তো বাংলার মানুষের বড় অপমান। আমরা নির্বাচন কমিশনের কাছে জানতে চাই, কেন বিরোধী রাজ্যগুলিতেই বেশি সংখ্যক বাহিনী পাঠানো হচ্ছে? কই গুজরাতে তো পাঠানো হচ্ছে না! এই ধরনের সিদ্ধান্তেই কমিশনের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন উঠে যায়।’’

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement