BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনার বলি এবার ৫ মাসের শিশু, হরিদেবপুরে হোম আইসোলেশনে চলছিল চিকিৎসা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: July 18, 2020 12:14 pm|    Updated: July 18, 2020 12:14 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এবার শহর কলকাতায় করোনার (Coronavirus) বলি মাত্র ৫ মাসের দুধের শিশু। সূত্রের খবর, দিন কয়েক আগে করোনা পজিটিভ হওয়ার পর হরিদেবপুরের ওই শিশুকে বাড়িতে রেখেই চিকিৎসা চলছিল। শুক্রবার সন্ধেবেলা শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় এক বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় ভরতির জন্য। কিন্তু নিয়ে যাওয়ার পর চিকিৎসকরা পরীক্ষা করে জানান, শিশুর মৃত্যু হয়েছে আগেই।

জানা গিয়েছে, জন্ম থেকে শিশুটির হৃদযন্ত্রের সমস্যা ছিল। তার জন্য তার চিকিৎসা চলছি মুকুন্দপুরের ওই বেসরকারি হাসপাতালে। এ মাসের গোড়াতেও অসুস্থ হওয়ায় ৫ মাসের শিশুকে হাসপাতাল ভরতি করিয়ে চিকিৎসা চলছিল। চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন, তাকে সুস্থ করে তোলার জন্য হৃদযন্ত্রে অপারেশন প্রয়োজন। তার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছিল হাসপাতালের তরফে। এরই মাঝে শিশুর শরীরে করোনা সংক্রমণ হওয়ায় অস্ত্রোপচারের দিনক্ষণ পিছিয়ে যায়। চিকিৎসকদের পরামর্শমতো বাড়িতে রেখেই শিশুর চিকিৎসা চলছিল। কিন্তু শুক্রবার সন্ধের পরই ঘনিয়ে আসে বিপদ।

[আরও পড়ুন: কলকাতাবাসীর জন্য সুখবর, মাঝেরহাট ব্রিজ চালু হবে পুজোর আগেই]

অসুস্থ শিশুর বাবা, হরিদেবপুরের বাসিন্দা জানিয়েছেন, সন্ধের পর থেকে ৫ মাসের ওই শিশুর শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। মুকুন্দপুরের যে বেসরকারি হাসপাতালে সন্তানের অস্ত্রোপচার হওয়ার কথা, সেখানে যোগাযোগ করেন তিনি। কিন্তু হাসপাতালের তরফে জানানো হয় যে সেখানে করোনার চিকিৎসা হয় না। তারাই পরামর্শ দেন, সরাসরি স্বাস্থ্যভবনে সমস্যার কথা জানাতে। স্বাস্থ্যভবন এখন থেকে কোথায় কাকে ভরতি করাতে হবে, তার দিকনির্দেশিকা দেবে। বাবার দাবি, সেখানে ফোন করার পর শিশুকে এক বেসরকারি হাসপাতালে ভরতি করানোর কথা বলেন স্বাস্থ্যভবনের আধিকারিকরা। সেখানে নিয়ে যাওয়ার পরই মৃত ঘোষণা করা হয় ৫ মাসের শিশুটিকে। আকস্মিক এই ঘটনায় স্বভাবতই শোকে পাথর গোটা পরিবার। 

[আরও পড়ুন: পাখির চোখ একুশের ভোট, রাজ্যবাসীর পরামর্শ নিতে নতুন ই-মেল আইডি চালু দিলীপের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement