১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  শনিবার ৩ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ফের মুখ্যসচিবকে রাজভবনে তলব, প্রয়োজনীয় নথি দেখে বাজেটে অনুমোদন রাজ্যপালের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: February 7, 2020 7:37 pm|    Updated: February 7, 2020 9:07 pm

Governor allows to place budget after seeing important papers

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিধানসভায় বাজেট অধিবেশনের শুরু মসৃণভাবেই হয়েছিল। নিজের কোনও মত সংযোজন না করে রাজ্যের তৈরি করা ভাষণই পড়েছেন রাজ্যপাল। তবে বিধানসভার বাইরে কিন্তু রাজভবনের সঙ্গে নবান্নের সম্পর্কের শীতলতা তেমন কাটেনি বলেই মনে করা হচ্ছে। নাহলে বিধানসভা অধিবেশন শেষে কেনই বা ফের মুখ্যসচিব ও অর্থসচিবকে ডেকে পাঠালেন ধনকড়?  প্রথমে এমন জল্পনা তৈরি হলেও, পরে তার উত্তর মিলল। বাজেটের প্রয়োজনীয় নথি দেখে বাজেটে অনুমোদন দিয়েছেন রাজ্যপাল, প্রেস বিবৃতি দিয়ে নিজেই তা জানালেন।

সূত্রের খবর, বিধানসভা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর বাজেট সংক্রান্ত আলোচনার জন্য মুখ্যসচিবকে রাজভবনে ডেকে পাঠিয়েছিলেন জগদীপ ধনকড়। সন্ধেবেলা দু’জনই যান সেখানে। দীর্ঘক্ষণ ধরে বৈঠক হয়। তবে ঠিক কী প্রসঙ্গে আলোচনা হয়েছে, তা জানা যায়নি। যদিও বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে, বাজেট অধিবেশন শুরুর আগে যখন রাজ্যপালের ভাষণ নিয়ে একটা জট তৈরি হয়েছিল, সেসময় বাজেটে বিভিন্ন ঘোষিত প্রকল্পের অর্থের সংস্থান কোথা থেকে হবে, ধনকড় তা জানতে চেয়েছিলেন। তাই অর্থবিলের গোটাটাই দেখানোর দাবি করেন। বাজেট অত্যন্ত গোপন নথি, তা পেশের আগে দেখানো যায় না – এই যুক্তিতে তাঁর দাবি পূরিত হয়নি।

[আরও পড়ুন: নির্জন রাস্তায় মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাতের পর ডাকাতি, সর্বস্ব খোয়ালেন যুবক]

তাহলে কি অধিবেশনের সূচনা করে ফের তিনি ওই একই বিষয় জানতে চেয়েছেন মুখ্যসচিব ও অর্থসচিবের কাছে? সেক্ষেত্রে এবারও তাঁর প্রশ্নের উত্তর দিতে পারবেন না রাজ্য সরকারের অধিকর্তারা। কারণ, আগামী ১৩ তারিখ বাজেট পেশের আগে তা বলা সম্ভব নয়। এদিন বাজেট অধিবেশন চলাকালীনই রাজ্যের ৩ প্রিন্সিপল অ্যাকাউন্ট্যান্টকে ডেকে পাঠান রাজ্যপাল। তাঁরাও গিয়েছিলেন বিকেলে, রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করতে। প্রিন্সিপল অ্যাকাউন্ট্যান্টদের কাছে কী জানতে চেয়েছেন ধনকড়, তাও স্পষ্ট ছিল না। যদিও রাতের দিকে নিজেই সমস্ত উত্তর দিয়ে দিলেন। প্রেস বিবৃতিতে জানালেন, মুখ্যসচিব, অর্থসচিবের কাছ থেকে বাজেটের প্রয়োজনীয় নথিপত্র দেখে তিনি অনুমোদন দিয়েছেন। সেটাই পেশ করা হবে ১৩ তারিখ।

[আরও পড়ুন: গর্জালেও বর্ষালেন না, বাজেট অধিবেশনে রাজ্যের তৈরি ভাষণই হুবহু পড়লেন রাজ্যপাল]

অপরদিকে, বিধানসভা থেকে বেরিয়ে রানি রাসমনি রোডে CAA-NRC বিরোধী বিক্ষোভে শামিল হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে রাস্তাজুড়ে সবজি দিয়ে লেখা – NO NRC, NO CAA. নেতৃত্বে বেচারাম মান্না। প্রতিবাদের এই ধরন দেখে অবাক হয়ে যান মুখ্যমন্ত্রী।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে