BREAKING NEWS

১৯ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ৫ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

‘তথ্য গোপন করে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা অসম্ভব’, রাজ্যের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক রাজ্যপাল

Published by: Sayani Sen |    Posted: June 1, 2020 2:22 pm|    Updated: June 1, 2020 2:29 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাংলার সরকার করোনায় আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা গোপন করছে বলে বারবার অভিযোগ করেছেন বিরোধীরা। পরীক্ষাও কম হচ্ছে বলে অভিযোগ তাঁদের। এবার সেই একই অভিযোগের সুর রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের (Jagdeep Dhankar) গলায়। সোমবার সকালে করোনা সংক্রান্ত পরপর দু’টি টুইট করেন তিনি। 

প্রথম টুইটে সরাসরি ডেরেক ও ব্রায়েনকে উদ্ধৃত করে রাজ্যপাল লেখেন, “আমি ডেরেক ও ব্রায়েনের কাছে জানতে চাই রাজ্যে এখনও পর্যন্ত কত করোনা টেস্টের রিপোর্ট আসতে বাকি? মুখ্যসচিবের সঙ্গে বৈঠকের সময় জানিয়েছিলাম সংখ্যাটা ৪০ হাজারেরও বেশি হবে। এটা সত্যিই চিন্তার বিষয়। রিপোর্ট আসতে দেরি হলে টেস্ট করার উদ্দেশ্যই যে সফল হবে না।”

[আরও পড়ুন: মুখে নেই মাস্ক, চুলোয় সামাজিক দূরত্ব, আনলক ওয়ানের প্রথম দিনই কলকাতায় দেদার পুজোপাঠ]

রবিবার স্বাস্থ্যভবনের বুলেটিনে দেখা গিয়েছে মাত্র চব্বিশ ঘণ্টায় ৩৭১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। সংক্রমণের নিরিখে যা সর্বকালীন রেকর্ড। এছাড়াও জানানো হয়েছে রবিবার ৯৩৫৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। যা এখনও পর্যন্ত সর্বোচ্চ। রবিবার পর্যন্ত রাজ্যে মোট টেস্টের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ লক্ষ ৩ হাজার ৭৫১। প্রতি ১০ লক্ষ মানুষে টেস্ট হয়েছে ২২৬৪ জনের। মোট ৪০টি ল্যাবরেটরিতে টেস্ট হচ্ছে করোনার। রাজ্যের তরফে বারবার দাবি করা হয়েছে করোনা পরীক্ষা করানোর ক্ষেত্রে কোনও খামতি রাখা হচ্ছে না।

তবে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন। তিনি টুইটে রাজ্যকে আক্রমণ করেন। জগদীপ ধনকড় লেখেন, “গত ২৪ ঘণ্টায় শুধুমাত্র ৩৭১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এই সমস্ত তথ্য দিয়ে রাজ্য সরকার সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। তাতে কারও ভাল হবে না। কঠিন সময়ে এসব করবেন না। এখন সকলের সামনে সঠিক তথ্য তুলে ধরা প্রয়োজন। তবেই প্রত্যেক রাজ্যবাসী সাবধান হতে পারবেন।”

দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই রাজ্য সরকারের সঙ্গে বারবার সংঘাতে জড়িয়েছেন রাজ্যপাল। করোনা নিয়ে সংঘাতও এই প্রথম নয়। তবে মুখ্যসচিবের সঙ্গে রাজ্যপালের ঘণ্টাদুয়েকের বৈঠকের পর করোনা সংক্রান্ত মতবিরোধ কিছুটা হলেও ঘুচেছিল বলে মনে করেছিল রাজনৈতিক মহল। তবে সোমবার সকালের পরপর দু’টি টুইটে যে নবান্ন-রাজভবন সম্পর্কের আবারও অবনতি হল বলেই মত ওয়াকিবহাল মহলের। 

[আরও পড়ুন: আজ থেকে কালো কোট এবং টাইয়ে দেখা যাবে না টিটিইদের, বদলাচ্ছে টিকিট পরীক্ষার পদ্ধতিও]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement