৭  আশ্বিন  ১৪২৯  রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘ঐশীর মাথায় রক্ত না রং, পরীক্ষা করা উচিত’, ফের বিতর্কিত মন্তব্য দিলীপের

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: January 7, 2020 7:04 pm|    Updated: January 7, 2020 7:43 pm

JNU attack 'staged', Controversial Statement by Dilip Ghosh

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: জেএনইউ-তে হামলার ঘটনা সাজানো। ছাত্র সংসদের সভানেত্রী ঐশী ঘোষের উপর হামলা ও আঘাতের সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ে রাতের অন্ধকারে বহিরাগতদের তাণ্ডবের পর গোটা দেশ যখন নিন্দায় সরব, তখন সোমবার দিলীপ ঘোষের মন্তব্য ছিল, কমিউনিস্টদের মার খাওয়ার সময় এসেছে। মার খাচ্ছে ভাল হয়েছে। মেদিনীপুরের সাংসদের এহেন মন্তব্যে বিতর্কের ঝড় ওঠে। মঙ্গলবার ফের বিতর্কের আগুনে ঘি দিলেন বিজেপি নেতা। বললেন, ঐশীর মাথায় রক্ত না রং পরীক্ষা করা উচিত।

প্রসঙ্গত, রবিবার সন্ধেবেলা জেএনইউ ক্যাম্পাসে ঢুকে অন্তত তিনটি গার্লস হস্টেলে হামলা চালায় মুখ ঢাকা ‘বহিরাগত’র দল। অভিযোগ, হস্টেল থেকেই ছাত্র সংসদের সভানেত্রী ঐশী ঘোষকে টানতে টানতে বাইরে বের করে দেওয়ালে মাথা ঠুকে ফাটিয়ে দেওয়া হয়। মারা হয় লোহার রড দিয়ে। ব্যাট, লাঠির ঘায়ে আহত অধ্যাপিকা সুচরিতা সেন-সহ অন্তত ১৮ জন। এই ঘটনায় তীব্র প্রতিক্রিয়া দিয়েছে গোটা দেশ। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই হামলাকে ‘ফ্যাসিস্ট হামলা’ বলে তোপ দেগেছেন। প্রতিবাদে সরবব হয়েছে দেশের অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠা, বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব, রুপোলি পর্দার তারকা-সহ দেশের নাগরিক সমাজ। কিন্তু এই ঘটনায় পালটা গেরুয়া শিবিরের নেতারা বামপন্থী পড়ুয়াদের দিকেই অভিযোগের আঙুল তোলেন। স্মৃতি ইরানি থেকে প্রকাশ জাভড়েকর, প্রত্যেকেরই অভিমত, শিক্ষাঙ্গন রাজনীতির জায়গা নয়।

[আরও পড়ুন: ‘অ্যাম্বুল্যান্স আটকেছি, আবার আটকাব’, সমালোচনার মাঝে হুঁশিয়ারি দিলীপের]

মঙ্গলবার এই ইস্যুতে ফের সুর চড়ান দিলীপ ঘোষ। সাংবাদিক সম্মেলন করে বলেন, ‘জেএনইউ-এর ঘটনা সাজানো। ঐশীর মাথায় রক্ত না রং পরীক্ষা করা উচিত। ঐশীকে দুষ্কৃতীদের নেতৃত্ব দিতে দেখা গিয়েছে ভিডিও ফুটেজে।’ সিসিটিভি ফুটেজে প্রমাণ আছে বলে দাবি দিলীপ ঘোষের। তারপর তিনি আরও বলেন, ‘তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এফআইআরও হয়েছে। বাইরের লোক ঢুকল, মারল, তারপর তারা কোথায় চলে গেল। বাইরে থেকে যারা লোক এনেছিল, তারাই লুকিয়েছে ওদের।’

উল্লেখ্য, দুষ্কৃতী হামলায় গুরুতর জখম হন ঐশী। মাথায় পড়েছে ১৪টি সেলাই। তাঁকে কটাক্ষ করে দিলীপের মন্তব্য, ‘একজনের মাথায় রক্ত পড়েছে নাকি লাল রং দেওয়া হয়েছে, সেটা এখনও পরীক্ষা করা হয়নি। যাদবপুরে মন্ত্রীকে পেটানো হল, আমাদের নেত্রীকে মারা হল। এখানে মনে হচ্ছে বিরাট কিছু হয়েছে। ঐশী ঘোষকে মাথায় ব্যান্ডেজ বেঁধে দেখানো হচ্ছে। একাধিক ভিডিওয় দেখা গিয়েছে দুষ্কৃতীদের নেতৃত্ব দিয়েছেন ঐশী। ঐশী কি সহানুভূতি আদায়ে মাথায় ব্যান্ডেজ বেঁধেছেন?’ মন্তব্য দিলীপের।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে