৪ আষাঢ়  ১৪২৬  বুধবার ১৯ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

৪ আষাঢ়  ১৪২৬  বুধবার ১৯ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে তোলা সংখ্যালঘু তোষণের অভিযোগের জবাব বোধহয় এবার পেতে চলেছেন বিরোধীরা৷ ইমাম-মোয়াজ্জেমদের পর এবার পুরোহিত ভাতা চালুর ব্যবস্থা করতে চলেছে কলকাতা পুরসভা৷ কলকাতা পুরসভা এলাকার অন্তর্গত শ্মশানগুলিতে যেসব পুরোহিতরা দীর্ঘদিন ধরে নানা কাজের সঙ্গে যুক্ত, তাঁরাই এই ভাতা পাবে বলে জানিয়েছেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম৷

[আরও পড়ুন: ত্রিস্তরীয় নিরাপত্তায় শহরে আগামিকাল ভোটগণনা, বাড়তি সতর্কতা লালবাজারে]

জানা গিয়েছে, কলকাতা পুরসভার অধীনে মোট ৭টি শ্মশান রয়েছে৷ সেখানে কর্মরত পুরোহিতরা কেউ কেউ অগ্রদানী, কেউ বা পারলৌকিক কাজের সঙ্গে যুক্ত৷ এঁদের নিয়ে মেয়র ফিরহাদ হাকিমের বক্তব্য, এঁদের মধ্যে অনেকেই খুব দরিদ্র৷ অগ্রদানী হওয়ায় সবরকম আচার-অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পারেন না৷ শুধু দাহকাজের আগে-পরে হিন্দু রীতিনীতি মেনে সামান্য কিছু কাজ এঁদের জন্য বরাদ্দ থাকে৷ তাই আয়ও তেমন হয় না৷ বুধবার তাই পুরসভার অধিবেশনে আলোচনাক্রমে ঠিক করা হয়েছে, এই পুরোহিতদের কাজের জন্য ৩৮০ টাকা করে ভাতা দেওয়া হবে৷ জুন মাস থেকে চালু হবে ভাতা৷ পুরসভার এই সিদ্ধান্তের পর অন্যান্য মহল থেকেও দাবি উঠছে, স্থানীয় প্রশাসন যদি এভাবে সামান্য অঙ্কের ভাতা দেয়, তাহলে কিছুটা স্বস্তিতে থাকতে পারেন রাজ্যের পুরোহিতরা৷ কিছুটা নিশ্চিন্তও হন৷

[আরও পড়ুন: ‘বাবুসোনা তুমি কি পাগল?’, সোশ্যাল মিডিয়ায় দুই কৃতীকে কটাক্ষ ডাক্তারদের]

রাজ্যের ক্ষমতায় আসার কয়েক বছর পরই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ইমাম এবং মোয়াজ্জেমদের জন্য ভাতা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন৷ সেইমতো তাঁদের ভাতাপ্রদান শুরু হয়েছে৷ মুখ্যমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্তে স্বভাবতই খুশি হয়েছিলেন রাজ্যের ইসলাম সম্প্রদায়ের মানুষজন৷ আর সেখানেই মমতার বিরুদ্ধে উঠেছিল তোষণ রাজনীতির অভিযোগ৷ বিরোধীরা বারবার অভিযোগ করেন, সংখ্যালঘুদের সমর্থন পেতে এসব মুখ্যমন্ত্রীর রাজনৈতিক চাল৷ এনিয়ে কম চাপানউতোরও হয়নি৷ সেসবের জবাব দিতেই বোধহয় পালটা পুরোহিত ভাতা চালু করল পুরসভা৷ বোঝানো হল, সংখ্যালঘু তোষণের কোনও রাজনীতি করে না রাজ্য প্রশাসন৷ সকলের জন্য সমান দায়িত্ব পালন সরকারের কাজ৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং