১০ আষাঢ়  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

১০ আষাঢ়  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সন্দীপ চক্রবর্তী: সাত দফা ভোটপর্ব শেষে এক্সিট পোল প্রকাশিত হতেই, তৎপরতা বিরোধী শিবিরে৷ রবিবার রাতের বুথফেরৎ সমীক্ষা প্রকাশিত হওয়ামাত্রই তা উড়িয়ে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ টুইটারে তিনি এসব গুরুত্ব না দিয়ে বিরোধীদের একজোট হওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন৷ আর সোমবার তাঁরা নিজেদের মধ্যে আলোচনায় বসে গেলেন৷

[আরও পড়ুন:দুর্নীতি রুখতে কড়া দাওয়াই, কলেজে অনলাইনে ভরতির নির্দেশ শিক্ষামন্ত্রীর]

সোমবার বিকেলে শহরে আসেন টিডিপি নেতা তথা অন্ধ্রের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নায়ডু৷ ফলপ্রকাশের পর নতুন সরকার গঠনে বিরোধীদের ভূমিকা কী হবে, তার অন্তিম রূপরেখা ঠিক করতে তিনি বিজেপি বিরোধী সমস্ত দলের সুপ্রিমোদের সঙ্গে দিল্লিতে একদফা বৈঠক সেরেছেন৷ এবার এলেন শহরে, বিরোধী ঐক্যের ভিত্তিপ্রস্তর যিনি স্থাপন করেছেন, সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলার সঙ্গে৷ দমদম বিমানবন্দরে নেমে বিকেল ৫টা ৩৫ নাগাদ চন্দ্রবাবু পৌঁছে যান কালীঘাটে, মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে৷ সেখানে প্রায় মিনিট চল্লিশ দু’জনের কথা হয়৷ সূত্রের খবর, ফলপ্রকাশের পর সরকার গঠনের ক্ষেত্রে বিরোধীদের স্ট্র্যাটেজি, কার কী ভূমিকা থাকবে, সেটাই ছিল মূল আলোচ্য বিষয়৷ এরপর সন্ধে ৬টা ১৫ নাগাদ তিনি বেরিয়ে যান৷ মমতার মতো চন্দ্রবাবু নায়ডুও বুথফেরৎ সমীক্ষায় বিশ্বাস করতে নারাজ৷ তিনিও প্রকাশ্যে এক্সিট পোলের সমালোচনা করেছেন৷

চন্দ্রবাবুর নায়ডুর মতো বৈঠক করতে না পারলেও, এদিন সকালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফোন করেছিলেন সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো অখিলেশ যাদব৷ সূত্রের খবর, বুথফেরৎ সমীক্ষা নিয়ে তিনি মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন৷ অখিলেশও সমীক্ষার তথ্য মানতে নারাজ৷ বুথফেরৎ সমীক্ষায় ৮০টি আসনের উত্তরপ্রদেশে সিংহভাগ আসন বিজেপির দখলে যাচ্ছে বলে ইঙ্গিত মিলেছে৷ তা খারিজ করে অখিলেশ মমতাকে জানান, সমীক্ষা একেবারেই ভুল৷ উত্তরপ্রদেশে এসপি-বিএসপি জোট অন্তত ৫০ টি আসন পাচ্ছেই৷

[আরও পড়ুন: ঘরে বসে এভাবেই জেনে নিন মাধ্যমিকের ফল, রইল খুঁটিনাটি]

রবিবার শেষ দফার ভোটের পরই প্রকাশিত এক্সিট পোল অনুযায়ী, ৩০০র বেশি আসন নিয়ে কেন্দ্রে ফের ক্ষমতায় ফিরছে এনডিএ৷ তারপর থেকেই বিরোধী মহলে তোড়জোড়৷ প্রাথমিকভাবে সমমনোভাবাপন্ন অবিজেপি দলগুলিকে জোটবদ্ধ করে বিজোপির বিরোধী লড়াইয়ে শামিল হওয়ার কথা বলেছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ যদিও শেষপর্যন্ত সেই জোট খুব একটা দানা বাঁধেনি৷ তবে ২০১৮ সালে উত্তরপ্রদেশের এসপি-বিএসপি জোট বেঁধে লড়াইয়ে সাফল্যের ফলে উনিশের লোকসভাতেও তাঁরা একসঙ্গে লড়ছে৷ তা কতটা সফল হয়, বোঝা যাবে ২৩ তারিখ৷ তবে তার আগে নিজেদের পুরোপুরি প্রস্তুত রাখতে এতটুকুও ত্রুটি রাখছেন না বিরোধীরা৷

ছবি: পিন্টু প্রধান

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং