BREAKING NEWS

১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মধ‌্য এপ্রিলে পুরভোটের সম্ভাবনা, ভাবাচ্ছে সংরক্ষণের অঙ্ক ও ওয়ার্ড বিন্যাস

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: January 14, 2020 9:00 am|    Updated: January 14, 2020 9:03 am

Kolkata Municipal Corporation's election may be on mid of April

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এপ্রিলের মাঝামাঝিতে কলকাতা পুরসভায় ভোটের বাদ্যি বাজতে পারে। আর তা ধরে নিয়েই পুরোদমে প্রস্তুতি শুরু করে দিল তৃণমূল। এর মধ্যেই সংরক্ষণের অঙ্ক অর্থাৎ ওয়ার্ড বিন্যাস নিয়ে জল্পনা কলকাতা পুরসভার অন্দরে। রাজ্য নির্বাচন কমিশন এই সংরক্ষণের বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল। কমিশন সূত্রে খবর, এবার ৩,৬,৯ সমীকরণে সংরক্ষিত থাকবে ওয়ার্ড। এর ফলে বর্তমানে চারজন মেয়র পারিষদ নিজেদের ওয়ার্ডে দাঁড়াতে পারবেন না। রতন দে, দেবব্রত মজুমদার, বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায় ও স্বপন সমাদ্দারকে সংরক্ষণের কোপে ওয়ার্ড ছাড়তে হতে পারে। যদিও এর মধ্যে তিনজন আগে অন্য কোনও ওয়ার্ডে প্রার্থী হয়েছিলেন।

রাস্তা বিভাগের মেয়র পারিষদ ৯৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রতন দে আগেও ৯২ নম্বর ওয়ার্ডে লড়েছিলেন। তেমনই পাপিয়া বিশ্বাসের আগে বস্তি বিভাগের মেয়র পারিষদ ৫৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর স্বপন সমাদ্দার ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে বাগমারি থেকেই জিতে আসতেন। মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে পুরভোটের প্রস্তুতি নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি শুধুমাত্র বলেন, “আমাদের লক্ষ্য আরও বেশি করে জনসংযোগ। মানুষের কাছে ও মানুষের পাশে থাকা সব সময়।” যদিও সংরক্ষণের বিজ্ঞপ্তি না বেরনো পর্যন্ত কোনও পদাধিকারী মন্তব্য করতে চাইছেন না। চূড়ান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হতে পারে ১৭ জানুয়ারি।

[আরও পড়ুন: কুকুরছানা হত্যাকাণ্ডে এনআরএসের ২ ছাত্রীর বিরুদ্ধে চার্জ গঠন, শুনানি ফেব্রুয়ারিতে]

প্রতিবার পুরভোটের আগেই ওয়ার্ডের বিন্যাস হয়ে থাকে। তার দিকে তাকিয়ে থাকেন কাউন্সিলররা ও বিভিন্ন দলের সম্ভাব্য প্রার্থীরা। এবারও এই সম্ভাব্য বিন্যাস ঘিরে পুরসভার মহলে জল্পনা তুঙ্গে। আপাতত জানা গিয়েছে, ৩, ৬, ৯, ১২, ১৫, ১৮, ২১, ২৪, ২৭ ও ৩০ নম্বর ওয়ার্ড মহিলা সংরক্ষিত। ৩৭ থেকে ৫৫ এবং ৬১ থেকে ১২৮ নম্বর পর্যন্তও একই বিন্যাসে হবে মহিলা সংরক্ষণ। ১৩২ নম্বর ওয়ার্ডটিও হবে সাধারণ মহিলা সংরক্ষিত। ৫৮, ৭৮, ১২৭, ১৩৩ নম্বর ওয়ার্ড তফসিলি জাতিভুক্ত মহিলা সংরক্ষিত। ১৪১ ও ১৪২ নম্বর ওয়ার্ড মহিলা সংরক্ষিত হবে। ১০৭, ১১০ হবে তফসিলি জাতিভুক্তের সংরক্ষণে।

[আরও পড়ুন: ‘আপনার নাম নিতে লজ্জা লাগে’, দিলীপের গুলি করার নিদানের পালটা দিলেন মমতা]

কঠিন বর্জ্য বিভাগের মেয়র পারিষদ দেবব্রত মজুমদার ৯৬ নম্বর ওয়ার্ডের দীর্ঘদিনের কাউন্সিলর। আইন বিভাগের মেয়র পারিষদ বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায় ৯০ নম্বর ওয়ার্ড থেকে জিতে এসেছেন। স্বপন সমাদ্দারকে এ ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “সংরক্ষণের বিষয়ে কিছু জানি না। চূড়ান্ত তালিকা পেলে বলব। তবে দল যা দায়িত্ব দেবে তাই করব। সেটাই মেনে চলব।” একই বক্তব্য অন্যান্য মেয়র পারিষদদেরও।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে