Advertisement
Advertisement
Dev

ভোটের আগে অস্বস্তিতে দেব! সহকারীর বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ, হাই কোর্টে দায়ের মামলা

সোমবার হাই কোর্টের বিচারপতি জয় সেনগুপ্তর এজলাসে মামলা দায়ের করেন ব্যক্তি। শুক্রবার সেই মামলার শুনানি হতে পারে।

Lok Sabha Election 2024: Case filed at Calcutta HC against assistant of TMC star candidate Dev
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:May 13, 2024 11:52 am
  • Updated:May 13, 2024 1:23 pm

গোবিন্দ রায়: লোকসভা নির্বাচনের আগে আইনি বিপাকে তৃণমূলের তারকা প্রার্থী দেব। তাঁর সহকারী রমাপদ মান্নার বিরুদ্ধে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে বিপুল অঙ্কের টাকা নেওয়ার অভিযোগ নিয়ে রবিবার থেকেই শোরগোল শুরু হয়েছিল। এবার সেই ঘটনায় সিবিআই তদন্তের আবেদন জানিয়ে কলকাতা হাই কোর্টে (Calcutta HC) দায়ের হল মামলা। আগামী শুক্রবার শুনানির সম্ভাবনা।

দেবের (Dev) সহকারী রমাপদ মান্নার বিরুদ্ধে মূল অভিযোগ, তিনি চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে এক ব্যক্তির থেকে প্রায় ৮ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা নিয়েছিলেন। কিন্তু তার পরও চাকরি না পাওয়ায় রমাপদ মান্নার বিরুদ্ধে ঘাটাল থানায় তিনি এফআইআর করতে যান। অভিযোগ, পুলিশ এফআইআর (FIR) গ্রহণ করেনি। তাই এনিয়ে পুলিশি তদন্তে আস্থা রাখতে না পেরে সিবিআই (CBI) তদন্তের দাবি তুলেছেন ওই অভিযোগকারী। আর সেই আবেদন জানিয়েই সোমবার হাই কোর্টের বিচারপতি জয় সেনগুপ্তর এজলাসে মামলা দায়ের করেন। শুক্রবার সেই মামলার শুনানি হতে পারে।

Advertisement

[আরও পড়ুন: ‘কেউ নাগরিকত্ব খোয়ালে আমি থুতু চাটব’, CAA নিয়ে চ্যালেঞ্জ মিঠুনের]

ঘাটালে (Ghatal) আগেও টাকার বিনিময়ে চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে। জনপ্রতিনিধি হিসেবে এক্ষেত্রে দেবের দিকেও আঙুল তুলেছিলেন কেউ কেউ। তা নিয়ে জেলা তৃণমূলের (TMC)  অন্দরেও বিস্তর সমস্যা তৈরি হয়। জেলার নেতা শংকর দোলুইয়ের সঙ্গে দেবের ঠান্ডা লড়াই প্রকাশ্যেও এসেছিল। রাজনৈতিক মহলের একাংশের মত, শংকর দোলুইয়ের সঙ্গে সেই চোরা অন্তর্দ্বন্দ্বের জেরেই দেব রাজনীতি ছাড়তে চেয়েছিলেন। পরে অবশ্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতির বদল হয়। ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনে (Lok Sabha Election 2024) ফের ঘাটালের প্রার্থী হন দেব।

Advertisement

[আরও পড়ুন: ‘পার্থ ভৌমিককে ভোট দিন’, রাজের সঙ্গে ভোটপ্রচারের গাড়িতে গলা ফাটালেন ‘মিঠাই’ সৌমিতৃষা!]

কিন্তু তারই মাঝে তাঁর সহকারীর রমাপদ মান্নার বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে আইনি বিপাকে পড়লেন। জানা যাচ্ছে, চন্দ্রকোণার ক্ষীরপাইয়ের এক বাসিন্দা মেয়ের চাকরির জন্য রমাপদ মান্নাকে টাকা দিয়েছিলেন। কিন্তু প্রতিশ্রুতিমতো চাকরি না মেলায় থানায় অভিযোগ জানাতে যান। ঘাটাল থানার পুলিশ এনিয়ে এফআইআর গ্রহণ করেনি বলে অভিযোগ। সেই কারণেই তিনি হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ