BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১১ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

‘আমফানের টাকা তাড়াতাড়ি পাঠানোয় কোথাও কোথাও সমস্যা হয়েছে’, দুর্নীতি নিয়ে ব্যাখ্যা মমতার

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: July 6, 2020 5:02 pm|    Updated: July 6, 2020 5:55 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আমফানের (Amphan) ত্রাণ বিলিতে যে বেশ কিছু সমস্যা হয়েছে, ফের তা স্বীকার করে নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। সোমবার সাংবাদিক বৈঠক থেকে বললেন, “তাড়াতাড়ি টাকা, ত্রাণসামগ্রী পাঠানো হয়েছে বলে কোথাও কোথাও সমস্যা দেখা দিয়েছে।” আশ্বাস দিলেন অবিলম্বে সমস্যা সমাধানের।

সোমবার প্রথমে নবান্নের (Nabanna) সভাঘরে টলিউডের কলাকুশলীদের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। এরপর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে একাধিক সিদ্ধান্তের কথা জানান তিনি। সেখানেই ফের উঠে আসে আমফান প্রসঙ্গ। ত্রাণ বিলি নিয়ে উঠে আসা একাধিক অভিযোগ প্রসঙ্গে এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “অল্প সময়ের মধ্যে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে ত্রাণ সামগ্রী, টাকা পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। সেই কারণেই বেশ কিছু ক্ষেত্রে সমস্যা দেখা দিয়েছে। তবে তা নিয়ে দুশ্চিন্তার কিছু নেই।” পাশপাশি, আশ্বাস দিয়ে বললেন, একজন ক্ষতিগ্রস্তও ত্রাণ থেকে বঞ্চিত হবেন না। অর্থাৎ, ত্রাণ নিয়ে শাসকদলের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ যে একেবারেই ভিত্তিহীন নয়, কার্যত তা মেনে নিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তবে সমস্ত সমস্যার দায় চাপালেন সময়ের উপর!

[আরও পড়ুন: ‘দিদিকে বলো’র অনুকরণ! আমফান দুর্গতদের জন্য ‘দিলীপদাকে বলো’ কর্মসূচি বিজেপির]

২০ মে রাজ্যে তাণ্ডব চালিয়েছিল ঘূর্ণিঝড় আমফান। লণ্ডভণ্ড করে দিয়েছিল গোটা বাংলা। জেলা, শহর-শহরতলি যেন অচেনা হয়ে উঠেছিল। ভেঙেছিল হাজার হাজার বাড়ি। আশ্রয়হারা হয়েছিলেন কয়েক হাজার মানুষ। দীর্ঘক্ষণ অন্ধকারে ডুবেছিল গোটা রাজ্য। পরবর্তীতে পরিস্থিতি ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হলেও প্রবল সমস্যায় পড়তে হয়েছে সেই সময় মানুষগুলোকে, যাদের শেষ সম্বলটুকুও কেড়ে নিয়েছে আমফান। যদিও প্রথম থেকেই তাঁদের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন। ব্যবস্থা করেছিলেন ক্ষতিপূরণের। বহু মানুষ ক্ষতিপূরণ পেয়েওছেন। তবে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের বহু আমফান দুর্গতরা স্থানীয় নেতাদের দুর্নীতির কারণে প্রাপ্যের কানাকড়িও পাননি। যা নিয়ে বারবার প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে।

[আরও পড়ুন: লকডাউনে সন্তানদের নিয়ে গা ঢাকা প্রাক্তন স্ত্রী’র, খোঁজ পেতে হাই কোর্টের দ্বারস্থ স্বামী]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement