BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘কেউ VIP নয়, প্রভাব খাটাবেন না’, অসুস্থতায় করোনা পরীক্ষার কড়া নির্দেশ মমতার

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 18, 2020 4:58 pm|    Updated: March 18, 2020 5:22 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিদেশ থেকে ফিরলে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করান, কয়েকদিন নিজেরা আইসোলেশনে থাকুন। অবিবেচকের মতো এসব এড়িয়ে ঘুরে বেড়াবেন না। নিজের ছেলেকে নিয়ে নবান্নের আমলার দায়িত্বজ্ঞানহীন ভূমিকা নিয়ে বিতর্ক উঠতে নাম না করে আরও কড়া বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর। সাফ বললেন, “পরিবারের কেউ প্রভাবশালী, একথা ভেবে স্বাস্থ্য বিধি এড়িয়ে কোনও জনবহুল স্থানে ঘোরাঘুরি করে সংক্রমণ ছড়াবেন না।” তোপ দাগলেন সংবাদমাধ্যমকেও। করোনা নিয়ে অযথা গুজব ছড়ানো হচ্ছে, এই অভিযোগ তুলে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে কড়া আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিলেন পুলিশকে।

রবিবার লন্ডন থেকে ফেরেন টালিগঞ্জের এক তরুণ। তাঁর শরীর সামান্য অসুস্থ থাকায় এম আর বাঙ্গুর হাসপাতালে গিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে যান। চিকিৎসক তাঁকে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে রেফার করলেও, তা পরামর্শ না মেনে দু’দিন মায়ের সঙ্গে শপিং মল ঘুরেছেন, নবান্নে গিয়েও তাঁরা দেখাসাক্ষাৎ করেন। এরপর মঙ্গলবার বেলেঘাটা আইডি‘তে পরীক্ষা করা হলে, করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। তাঁকে তড়িঘড়ি ভরতি করানো হয় আইসোলেশন ওয়ার্ডে। তাঁর মা, বাবা, গাড়ির ২ চালককেও ভরতি করানো হয়েছে। পরে জানা গিয়েছে, তরুণের মা নবান্নে কর্মরত এক আমলা। এই পদে থাকা প্রশাসনিক আধিকারিকের এমন দায়িত্বজ্ঞানহীন ভূমিকা নিয়ে নবান্নের অন্দরেই অসন্তোষ দানা বাঁধে।

[আরও পড়ুন: মুখ পুড়ল কেন্দ্রের, পোলিশ ছাত্রকে ভারতে থাকার নির্দেশ হাই কোর্টের]

এ নিয়ে মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার দুপুর পর্যন্ত বিস্তর আলোচনার পর ড্যামেড কন্ট্রোলে আসরে নামলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নবান্নের সাংবাদিকদের সামনে এসে তিনি কড়া ভাষায় বলেন, “রোগ হতেই পারে। তা লুকিয়ে ঘুরে বেড়াবেন না। এটা সবচেয়ে বড় অবিবেচকের কাজ। এক্ষেত্রে VIP’র সঙ্গে সাধারণ মানুষের কোনও তফাৎ নেই। ভাববেন না, প্রভাব খাটিয়ে কেউ পরীক্ষা এড়িয়ে যেতে পারবেন। উপসর্গ দেখা দিলে, পরীক্ষা করান। নিজেরাই ১৫-২৭ দিন আইসোলেশনে থাকুন। সবার জন্য এক নিয়ম প্রযোজ্য।” এদিন তিনি সরকারি কর্মীদের সুবিধার জন্য দপ্তরগুলিকে কাজের সময় বদলের নির্দেশ দেন। বলেন, “ট্রেনে, বাসে ভিড় এড়াতে যাতে বিকেল চারটের মধ্যে সবাইকে ছুটি দেওয়া যায়, তা দেখতে হবে। বাড়িই এই মুহূ্র্তে সবচেয়ে নিরাপদ স্থান। ”

[আরও পড়ুন: রোনা নিয়ে গুজব ছড়ালেই কড়া শাস্তি! হুঁশিয়ারি সিপি অনুজ শর্মার]

নিজের প্রশাসনিক আমলার ভূমিকার পাশাপাশি সাংবাদিকদের ভূমিকার নিন্দা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি এও বলেন, কলকাতায় কোনও করোনা সংক্রমণ হয়নি। বাইরে থেকে জীবাণু প্রবেশ করেছে এখানে। তাই অযথা গুজব, আতঙ্ক ছড়ানো হচ্ছে, এই অভিযোগ তুলে একটি সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন তিনি। এবিষয়ে পুলিশকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement