২৭ আশ্বিন  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৫ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গাড়ি রেখে ভোট দিতে গিয়েছিলেন প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। তখনই তাঁর গাড়িতে হামলা চালান তাঁর স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়। এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তুললেন শোভনবাবু। বিষয়টি তিনি পর্ণশ্রী থানায় রবিবারই মৌখিকভাবে জানিয়েছেন বলে খবর। ভোট দিতে গেলে রত্নাদেবী তাঁকে হেনস্তা করতে পারেন, এমন আশঙ্কার কথা জানিয়ে আগেই নির্বাচন কমিশনকে চিঠি লিখেছিলেন শোভনবাবু। রত্নাদেবী তা অস্বীকার করলেও জানান, শোভনবাবু কোনও সঙ্গিনীকে নিয়ে ভোট দিতে এলে শোভনবাবু। রত্নাদেবী তা অস্বীকার করলেও জানান, শোভনবাবু কোনও সঙ্গিনীকে নিয়ে ভোট দিতে এলে পর্ণশ্রীর মানুষ প্রতিবাদ করবে। এরপর এদিন শোভনবাবু ভোট দিতে গেলে এই ঘটনা ঘটে বলে জানা গিয়েছে।

শোভনবাবু বলেন, “আমার জন্য পুলিশের পর্যাপ্ত সুরক্ষা ব্যবস্থা ছিল। কিন্তু আমি যখন গাড়ি থেকে নেমে ভোট দিতে চলে যাই, তখনই রত্না ও তাঁর সঙ্গীরা গাড়ির উপর হামলা চালান। কালো কাচেন মধ্যে ধাক্কা দেওয়া হয়। ভিতরে কে আছেন, দেখার জন্য গাড়ির উপর চড়াও হয় তাঁর কয়েকজন সঙ্গী।” এই অভিযোগ সম্পূর্ণ উড়িয়ে দিয়ে রত্নাদেবী সাফ জানিয়ে দেন, “এই ধরনের কোনও ঘটনা ঘটেনি। শোভনবাবুর মাথার ঠিক নেই। ভোট দিন অনেক মিডিয়া সেখানে উপস্থিত ছিল। তাহলে কোনও ছবি বা ফুটেজ নেই কেন? উনি সম্পূর্ণ মিথ্যা কথা বলছেন।”

[ আরও পড়ুন: পুলিশি নিরাপত্তায় পরিবারকে এড়িয়ে বাড়ির পাশের বুথে ভোট দিলেন শোভন ]

রত্নাদেবীর এমন মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে শোভনবাবু প্রতিক্রিয়া, “উনি এত মিথ্যা কথা বলেন যে সত্যি আর মিথ্যের মধ্যে গুলিয়ে ফেলেছেন। উনি ভুলে যাচ্ছেন যে ওই গাড়ির মধ্যে চালক উপস্থিত ছিলেন। তাছাড়াও সেখানে বহু মানুষ ছিলেন যাঁরা আমার পরিচিত, তাঁরাই আমাকে পরে বিষয়টি জানান।” তিনি আরও বলেন, “রত্না ও তাঁর সঙ্গীরা গাড়ির মধ্যে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় রযেছেন কিনা, তা দেখার জন্য এই হামলা করেছেন। তবে এভাবে হামলা চালিয়ে দেখার কোনও দরকার নেই। আমরা মানুষের মধ্যে যাই। কাউকে লুকিয়ে যাই না। তাই যখন যাব, উনি দেখে নেবেন। ওঁর চোখ সার্থক হবে।” বৈশাখীদেবীর সুরক্ষা নিয়ে উদ্বিগ্ন শোভনবাবু বিষয়টি পুলিশকে জানিয়েছেন শোভনবাবু।

তাঁকে খুঁজতেই শোভনবাবুর গাড়ির উপর চড়াও হওয়ার ঘটনা ঘটেছে বলে স্পষ্টভাবে জানিয়েছেন বৈশাখীদেবীও। তাঁর বক্তব্য, “আমি আগেও পুলিশকে জানিয়েছি, রত্নাদেবী আমার সুরক্ষার ক্ষেত্রে বড় বাধা। তিনি এমন কাজ করেছেন যে তাতে আমার নিরাপত্তার সমস্যা হতে পারে। এদিনের ঘটনার পর আমি এই বিষয়টি নিয়ে এত নিশ্চিত হলাম। তবে উনি যেন নিজেকে বেহালার অধিশ্বরী না মনে করেন। আমি যখন যাব, গাড়ির কাচ খুলেই যাব। কালো কাচের ভিতর দিয়ে আমাকে খুঁজতে হবে না। এমনিই দেখতে পাবেন।”

[ আরও পড়ুন: ‘মিমিকে দেখুন কোথাও গিয়ে মেকআপ নিচ্ছেন’, নির্বাচন শেষে খোশমেজাজে অনুপম ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং