৩০ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ১৮ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে হেনস্তার পরিপ্রেক্ষিতে আজ পথে নামছে এসএফআই, এবিভিপি – দু পক্ষই। রাজ্যজুড়ে এবিভিপি দফায় দফায় প্রতিবাদ কর্মসূচিতে নামছে। দুপুর ২টোয় গান্ধীমূর্তির পাদদেশে তাঁদের অবস্থান বিক্ষোভ। বিকেলে সাংবাদিক বৈঠক করবে এবিভিপি নেতৃত্ব। প্রতিবাদে মিছিল বিজেপিরও। একটা নাগাদ রাজ্য দপ্তরের সামনে থেকে পদযাত্রা। এতে শামিল হতে পারেন ফ্যাশন ডিজাইনার তথা বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা পাল। বৃহস্পতিবার অশান্তির সময় তিনিও নিগৃহীত হয়েছেন বলে অভিযোগ দায়ের করেছেন যাদবপুর থানার পুলিশের কাছে। মিছিল থেকে তার প্রতিবাদেও সরব হবে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব।

[আরও পড়ুন: ‘ব্যথা’ বুঝতে কলকাতায় জার্মান তরুণী, দেবেন উপশমের পরামর্শও]

এছাড়া এই একই ইস্যুতে আজ কলকাতায় আরও কয়েকটি মিছিল কর্মসূচি রয়েছে। বিকেল চারটে নাগাদ এসএফআইয়ের তরফে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পদযাত্রা শুরু হবে। প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা পদযাত্রা শুরু করবেন ৫টা নাগাদ। ফলে দুপুর থেকেই শহরের বিভিন্ন পথঘাটে যানজট হওয়ার প্রবল সম্ভাবনা। কাজের দিনে বাড়ি ফেরার পথে নাকালের আশঙ্কায় ভুগছেন নিত্যযাত্রীরা।

SFI-rally-JU
পথে নামল এসএফআই

এদিকে, যাদবপুরের মতো দেশের এক নামী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে একজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে এভাবে হেনস্তা হতে হয়েছে, এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি এনিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠিতে নালিশ জানিয়েছেন। সূত্রের খবর, তাতে তিনি উল্লেখ করেছেন যে বিশ্ববিদ্যালয়ে এমন এক ঘটনা আটকাতে পুলিশ ডাকেননি উপচার্য। বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে সেই কাজ করতে হয়েছে রাজ্যপালকে, যা তীব্র নিন্দনীয়।
বৃহ্স্পতিবারের ঘটনার জেরে শুক্রবার রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভ ও অবরোধের ডাক দিয়েছে এসএফআই। সংগঠনের তরফে জানানো হয়েছে, ‘আমাদের সংগঠন কখনই দেশের কোনও ক্যাম্পাসে কারও প্রবেশাধিকার নিয়ে হস্তক্ষেপ করাকে সমর্থন করে না। এর আগেও তা একাধিকবার জানানো হয়েছে। কিন্তু কেন্দ্রের এক প্রতিমন্ত্রী যাদবপুর ক্যাম্পাসে যেভাবে দীর্ঘক্ষণ ধরে প্ররোচনা ও উস্কানি ছড়ান তার তীব্র প্রতিবাদ জানায় ভারতের ছাত্র ফেডারেশন। এবং কার্যত মন্ত্রীর প্ররোচনাতেই বহিরাগত গুন্ডাদের তাণ্ডবলীলা চলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে। ভাঙচুর করা হয় কলা বিভাগের ইউনিয়ন রুমে। কোনও সুস্থ গণতান্ত্রিক শক্তিই কোনও বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এই উস্কানিমূলক পদক্ষেপ নিতে পারে না। ক্যাম্পাসে ওই ফ্যাসিবাদী শক্তির সন্ত্রাস ছড়ানোর এই ঘটানাকে তীব্র নিন্দা জানায় ভারতের ছাত্র ফেডারেশন। একইসঙ্গে ন্যক্কারজনক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে বৃহত্তর ছাত্রসমাজকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ডাক দিচ্ছে এসএফআই।’

[আরও পড়ুন: ‘যাদবপুর কাণ্ডের দায় বাবুলের’, অভিযোগ তুলে আন্দোলনের ডাক SFI-এর]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং