১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৬ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

Vice President Election: মার্গারেট আলভাকে সমর্থন নয়, উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোটদানে বিরত থাকবে তৃণমূল

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: July 21, 2022 5:34 pm|    Updated: July 21, 2022 9:02 pm

Vice Presidential Election: TMC not to support any candidate in Vice-Presidential polls, announces Abhishek Banerjee | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এনডিএ (NDA) কিংবা বিরোধী প্রার্থী, উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনে কাউকে সমর্থন করছে না তৃণমূল (TMC)। ফলে ৬ অগাস্ট উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোটদান থেকে বিরত থাকছে তৃণমূল। বৃহস্পতিবার বিকেলে কালীঘাটের বাড়িতে দলীয় সাংসদদের নিয়ে বৈঠকের পর তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্বের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিলেন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)। কেন বাংলার শাসকদলের এই সিদ্ধান্ত, তাও বিশদে ব্যাখ্যা করলেন অভিষেক। জগদীপ ধনকড় কিংবা মার্গারেট আলভা – রাজনীতির আদর্শ মেনে কাউকেই সমর্থন করা তৃণমূলের পক্ষে সম্ভব নয়, তা জানালেন তিনি। 

 

উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনে (Vice President Election) এনডিএ শিবিরের প্রার্থী বাংলার সদ্য প্রাক্তন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় (Jagdeep Dhankhar)।  তাঁর নাম  প্রস্তাবের পরই রাজ্যপালের পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন ধনকড়। বাংলার শাসকদল তৃণমূলের সঙ্গে ধনকড়ের সংঘাত বরাবরের। নানা ইস্যুতে তা প্রকাশ্যে এসেছে একাধিকবার। এমনকী শেষবেলাতেও উভয়ের  সম্পর্ক মসৃণ হয়নি। এই অবস্থায় ধনকড়কে কোনওভাবেই সমর্থন করছে না তৃণমূল। বৃহস্পতিবার বিকেলে বৈঠকের পর সাংবাদিক বৈঠকে এসে এই যুক্তিই দেখালেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়। 

[আরও পড়ুন: মানুষের পাশে দাঁড়াতে চাই! ৬০০ কোটির সম্পত্তি দান উত্তরপ্রদেশের চিকিৎসকের]

এরপর তৃণমূলের হাতে থাকে দুটি পথ।  প্রথমত, বিরোধী পদপ্রার্থী মার্গারেট আলভাকে সমর্থন দেওয়া। দ্বিতীয়ত, উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোটদান থেকে বিরত থাকা। দ্বিতীয় রাস্তাই বেছে নিল শাসকদল। এ বিষয়ে অভিষেকের ব্যাখ্য়া, যেভাবে কংগ্রেস উপরাষ্ট্রপতি পদে কোনও আলোচনা ছাড়াই মার্গারেট আলভাকে বেছে নিয়েছে, তা সমর্থনযোগ্য নয়। তাই কাউকেই সমর্থন করছে না বাংলার শাসকদল। 

[আরও পড়ুন: বলিউড নায়কদের টক্কর দিতে আসছেন দক্ষিণী বিজয়, ‘লিগার’ ছবির ট্রেলারে বড় চমক]

তবে অভিষেক এও বলেন, তার মানেই বিরোধী ঐক্যে ফাটল – তা ভাবলে ভুল হবে।  এই একটি ইস্যুতে কংগ্রেস একতরফাভাবেই প্রার্থী বেছেছে। রাতারাতি বৈঠক ডাকা হয়েছিল, তাই তৃণমূলের পক্ষে তাতে যোগ দেওয়া সম্ভব হয়নি। যদিও বিজেপি বিরোধী বৃহত্তর ইস্যুতে বিরোধী দলগুলি একসঙ্গে রয়েছে বলেই স্পষ্ট করে দেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। তবে তাঁর কথা কংগ্রেস (Congress)-তৃণমূলের দ্বন্দ্ব আরও বাড়িয়ে দিল বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহলের একাংশ। এদিন অভিষেক জানান,  দলের ৩৫ জন সাংসদের মধ্য়ে ৩৩ জনই উপস্থিত ছিলেন। তাঁরা প্রত্যেকে নিজেদের মতামত, পরামর্শ পেশ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের সামনে। আর সেসব কথাকে গুরুত্ব দিয়ে উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করল তৃণমূল। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে