BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিশ্বভারতী কাণ্ডে হস্তক্ষেপ কলকাতা হাই কোর্টের, ঘটনার পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট চাইল আদালত

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: September 8, 2020 9:21 pm|    Updated: September 8, 2020 9:21 pm

An Images

শুভঙ্কর বসু: বিশ্বভারতী কাণ্ডে (Visva-Bharati University) এবার হস্তক্ষেপ করল কলকাতা হাইকোর্ট। গোটা ঘটনায় সিবিআই তদন্ত চেয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন আইনজীবী রমাপ্রসাদ সরকার। এ নিয়ে তিনি একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছিলেন। মঙ্গলবার সেই মামলার শুনানির পর ঘটনার পূর্ণাঙ্গ বিবরণ চেয়ে রিপোর্ট তলব করেছে প্রধান বিচারপতি টি বি রাধাকৃষ্ণণ ও বিচারপতি শম্পা সরকারের ডিভিশন বেঞ্চ।

বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ, শ্রীনিকেতন শান্তিনিকেতন ডেভেলপমেন্ট অথরিটি ও রাজ্য সরকারকে ঘটনার বিবরণ দিয়ে ১৬ সেপ্টেম্বরের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলেছে ডিভিশন বেঞ্চ। এদিন মামলার শুনানিতে রমাপ্রসাদবাবু ঘটনার দিনের কথা উল্লেখ করে হাইকোর্টের নজরদারিতে একটি বিশেষ কমিটি গঠন করে তদন্তের দাবি জানান। বক্তব্যের বিরোধিতা করে অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত বলেন, বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে এটি জনস্বার্থ মামলা হিসেবে গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ অবশ্য সমস্ত দিক বিবেচনায় রেখেছে। বিষয়টি জনস্বার্থ মামলা হিসেবে আদৌ গ্রহণযোগ্য হবে কিনা‌ সে বিষয়টিও এখনও বিচার্য হিসেবে রয়েছে। মামলার পরবর্তী শুনানি ১৮ তারিখ।

[আরও পড়ুন: ‘সিপিএম-বিজেপি কর্মীদের বুঝিয়ে দলে আনতে হবে,’ ২১-এর লক্ষ্যে ঘুঁটি সাজাচ্ছেন অনুব্রত]

প্রসঙ্গত, এর আগে দাঁড়িয়ে থেকে বিশ্বভারতীর পৌষ মেলার মাঠে পাঁচিল দেওয়ার কাজের তদারকি করছিলেন বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য। অভিযোগ, সে সময় তৃণমূল বিধায়ক নরেশ বাউড়ির শতাধিক লোক নিয়ে এসে সেই কাজে বাঁধা দেন এবং ভাঙচুর শুরু করেন। পরবর্তীতে নরেশ বাউড়ি-সহ নয়জন তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের করে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: ‘বাংলা যেন দ্বিতীয় পাকিস্তান’, ফের বিতর্কিত মন্তব্য বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement