২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২২ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

২৫০ টাকার কোভিড টেস্টের জন্য ৪,৫০০ কেন? বেসরকারি হাসপাতালকে তোপ মুখ্যসচিবের

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: June 18, 2020 8:11 pm|    Updated: June 18, 2020 8:11 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা চিকিৎসায় লাগামছাড়া টাকা নিচ্ছে বেসরকারি হাসপাতালগুলি। এই অভিযোগে সরব হয়েছে রোগীর পরিজনরা। বুধবারও নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। বৃহস্পতিবার রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা নবান্নে বেসরকারি হাসপাতালগুলির সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, করোনা চিকিৎসা ও টেস্টের জন্য অতিরিক্ত টাকা নেওয়া যাবে না। রোগীর পরিবারের উপর লাগামছাড়া খরচ চাপিয়ে দেওয়া যাবে না। তিনি জানিয়েছেন, ২৫০ টাকার টেস্টের জন্য কোথাও কোথাও ৪৫০০ টাকা নেওয়া হচ্ছে। এসব চলবে না বলে জানিয়েছেন রাজীব সিনহা।

এখন থেকে ICMR-এর গাইডলাইন মেনে উপসর্গ না থাকলে কোভিড টেস্ট করা যাবে না বলে ফের বেসরকারি চিকিৎসকদের জানিয়েছে নবান্ন। এই মর্মে নির্দেশিকাও জারি করা হয়েছে। এদিন বেসরকারি হাসপাতালগুলির সঙ্গে বৈঠকে এমনটাই জানান মুখ্যসচিব। করোনা যুদ্ধে সরকারির সঙ্গে বেসরকারি হাসপাতালগুলিকেও এক সূত্রে বেঁধে কাজ এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেছেন মুখ্যসচিব। সরকারের তরফে এবার থেকে একজন নোডাল অফিসার বেসরকারি হাসপাতালের পরিকাঠামোর বিষয়টি দেখবেন। পাশাপাশি পিপিই-সহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরঞ্জাম হাসপাতাল গুলিকে সরবরাহ করবে রাজ্য।

[আরও পড়ুন: সবার আগে দেশ, রাজনীতি সরিয়ে মোদির সর্বদল বৈঠকে থাকবেন মমতা]

এরপর এদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে রাজীব সিনহা বলেন, রাজ্যে সরকারি হাসপাতালের ১০ হাজার বেডের মধ্যে আট হাজারই ফাঁকা পড়ে রয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর প্রস্তাবিত সেফ হোম প্রকল্প চালু হলে খালি বেডের সংখ্যা আরও বাড়বে বলে জানিয়েছেন মুখ্যসচিব। আজ, বৃহস্পতিবার সন্ধে সাতটা থেকে ‘এগিয়ে বাংলা’ ওয়েবসাইটে সরকারি হাসপাতালে খালি বেডের সংখ্যা জানিয়ে দেওয়া হবে। আগামিকাল, শুক্রবার থেকে বেসরকারি হাসপাতালগুলির খালি বেডের তালিকাও প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যসচিব।

[আরও পড়ুন: কোভিড রিপোর্ট নেগেটিভ হলে দেওয়া যাবে ICSE-ISC পরীক্ষা, কলকাতার স্কুলের নোটিসে বিতর্ক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement