BREAKING NEWS

২ মাঘ  ১৪২৮  রবিবার ১৬ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

মহিলার চুলে থুতু ছিটিয়ে বিতর্কে জাভেদ হাবিব, ক্ষমা চেয়েও গ্রেপ্তার হেয়ার স্টাইলিস্ট

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: January 7, 2022 12:19 pm|    Updated: January 7, 2022 1:30 pm

Hairstylist Jawed Habib booked by UP Police after spat on woman's hair | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জলের অভাবে স্রেফ থুতু দিয়ে কীভাবে চুলের যত্ন নেওয়া যায়, প্রকাশ্য ওয়ার্কশপে তা শেখাতে গিয়ে ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়ে ফেলেছেন বিখ্যাত হেয়ার স্টাইলিস্ট জাভেদ হাবিব (Jawed Habib)। মহিলার চুলে থুতু ছিটিয়ে এবার তিনি শ্রীঘরে। ভিডিও ভাইরাল হতেই ক্ষমা চেয়ে নিলেও রেহাই পাননি। তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের করা এফআইআরে দ্রুত পদক্ষেপ নিল পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয়েছে হাবিবকে। ফ্যাশন দুনিয়া থেকে এই ঘটনার জল গড়াল জাতীয় স্তরে। 

Woman says that famouse hair stylist Jawed Habib spat on her hair, video goes viral

উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) বাগপতের তরুণী পূজা গুপ্তা গিয়েছিলেন জাভেদ হাবিবের একটি ওয়ার্কশপে। পূজা নিজেও একটি পার্লারের মালিক, সেখানে নানা পরামর্শ দেওয়ার মাঝে পূজাকে মঞ্চে ডেকে নেন হাবিব। জানান যে চুলের যত্ন নেওয়ার একটি ‘ডেমো’ দেখাবেন। পূজা বেশ খুশি মনেই রাজি হয়েছিলেন। মঞ্চে উঠে তিনি হাবিবের কথা মতো বসে পড়েন চুল কাটার সিটে। কাজ শুরু করেন হাবিবও। 

[আরও পড়ুন: Coronavirus: লাগামহীন করোনা, দেশে একদিনে সংক্রমিত ১ লক্ষ ১৭ হাজার]

কিন্তু কিছুক্ষণ পরই সেই তাল কেটে যায়। সোশ্যাল মিডিয়ায় পূজা জানিয়েছেন, ”আমার চুল শ্যাম্পু করা ছিল না। উনি কাটতে কাটতে ঠিক আমার চুলের মাঝখানে থুতু ছেটালেন। তারপর বললেন – এই থুতুতে প্রাণ আছে”। আসলে, হাবিব বোঝাতে চাইছিলেন, জলের অভাবে কীভাবে চুলের যত্ন করা যায়। আর তার জন্য তিনি অন্যের চুলে স্রেফ থুতু ছিটিয়ে ডেমো দেখাতে চাইছিলেন। কিন্তু বিষয়টি হওয়ার পরই পূজা সেখান থেকে উঠে আসেন। এতটা গা ঘিনঘিনে ব্যাপার তাঁর সহ্য হয়নি। এই তিক্ত অভিজ্ঞতা থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় পূজা এও জানিয়েছেন যে তিনি রাস্তার ধারে সেলুনে গিয়ে চুল কাটবেন, তবু কোনওদিন আর হাবিবের কাছে যাবেন না।

[আরও পড়ুন: মোদির নিরাপত্তা ইস্যুতে জোরাল হচ্ছে পাঞ্জাবে রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি, কড়া পদক্ষেপের ইঙ্গিত কেন্দ্রেরও]

মহিলার চুলে থুতু দেওয়ার ভিডিওটি ভাইরাল হতেই চাপে পড়ে ক্ষমা চেয়েছেন জাভেদ হাবিব। বিষয়টি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ছিল না বলেই আত্মপক্ষ সমর্থনে বলছেন তিনি। কিন্তু তাতে বিতর্কে জল ঢালা যায়নি। জাতীয় মহিলা কমিশন বিষয়টি অত্যন্ত গুরুতর অপরাধ বলেই মনে করছে। কমিশনের চেয়ারপার্সন রেখা শর্মা উত্তরপ্রদেশ পুলিশের ডিজির (DG) কাছে চিঠি লিখে দাবি জানিয়েছেন, ভাইরাল ভিডিওতে যা দেখা যাচ্ছে, তার দ্রুত তদন্ত করে নিয়ে কড়া ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক। এই আবেদন পেয়েই হাবিবের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়েরে দ্রুত পদক্ষেপ নেয় পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয় বিখ্যাত হেয়ার স্টাইলিস্টকে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে