৪ ভাদ্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৪ ভাদ্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফ্যাশন বিষয়ক নানা কিছু। কখনও ট্রেন্ড, কখনও কোনও পোশাকের কথা, আবার কখনও ফ্যাশন দুনিয়ায় ঘটে যাওয়া কোনও খবরাখবর নিয়ে এই কলাম। আজকের কলাম নানা ধরনের শেপওয়্যার নিয়ে। হালে অনলাইন সেলে শখ করে বডিকন ড্রেস কিনেছেন, অথচ পেট ও কোমরের বেড়ে ওঠা মেদ চিড় ধরাচ্ছে আত্মবিশ্বাসে! অথবা কর্পোরেট লুক আনার জন্য সদ্য কেনা স্কার্ট ও শার্ট পরে আয়নার সামনে দাঁড়ালেই ঘিরে ধরছে একরাশ হতাশা? এ ধরনের সমস্যা থেকে মুক্তির চটজলদি উপায় শেপওয়্যার

[আরও পড়ুন:   প্যাচপ্যাচে গরমে কীভাবে অক্ষত রাখবেন মেক-আপ? রইল টিপস]

বডিকন ড্রেস, ফিটেড কুর্তায় স্লিম অ্যান্ড ট্রিম লুক আনার জন্য ব্যবহার করুন ৩ ইন শেপওয়্যার। যাকে পোশাকি ভাষায় বলা হয় শেপিং বডি স্যুট। অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি এ ধরনের শেপওয়্যার পোশাকের তলায় ধরা দেয় না। সঙ্গে পেটের অংশে এতে ব্যবহৃত লেটেক্স প্যানেল কমপ্রেশনে উপযোগী। পেট, কোমরের অতিরিক্ত চর্বি নিমেষে ঢেকে ফেলার জন্য এই শেপওয়্যার উপযোগী। যাঁদের শুধুমাত্র মেদ রয়েছে কোমর ও থাইয়ের অংশে, তাঁরা বেছে নিন হাইওয়েস্ট থাই শেপার। এতে ব্রেস্টের খানিক নিচ থেকে থাইয়ের অংশ ঢাকা থাকবে শেপওয়্যারে। শুধুমাত্র পেট ও কোমরের অংশের মেদ ঢাকার জন্য ব্যবহার করুন শেপিং মিউওয়েস্ট সিমলেস বয়শর্ট প্যান্টি। যে কোনও বডি হাগিং টি-শার্ট, শার্ট বা স্কার্টের তলায় এ ধরনের শেপওয়্যার পরুন স্লিমিং এফেক্টের জন্য।

শাড়ি পরার সময় তলপেট ও শরীরের নিচের অংশকে স্লিম এফেক্ট দেওয়ার জন্য পাওয়া যায় ‘মারমেড’ শাড়ি শেপওয়্যার।
পলিমাইড স্প্যানডেক্সের তৈরি এই শেপওয়্যার পেটিকোট তলপেটের মেদ ও লাভ হ্যান্ডেল ঢেকে ফেলে খুব সহজেই। যে কোনও পার্টি ওয়্যারের স্লিমিং এফেক্টের জন্য রয়েছে কমপ্রেশন ক্যামিসোল। সিমলেস এই ক্যামি শরীরের ওপরের অংশে আনবে টোনড লুক। প্রথমবার শেপওয়্যার ট্রাই করার সময় সেটি যেন মিডিয়াম বা লো কমপ্রেশনের হয় সেদিকে নজর দিন। নিজের সাইজের সম্বন্ধে ওয়াকিবহাল হয়ে শেপওয়্যার কিনুন। প্রয়োজনে সাইজ গাইড বা স্টোরে থাকা বিশেষজ্ঞের সঙ্গে আলোচনা করে জেনে নিন আপনার ঠিক সাইজ। অস্বস্তি বোধ হয় বা শরীরের কোনও অংশে বাড়তি চাপ হলে শেপওয়্যার এড়িয়ে চলুন।

[আরও পড়ুন:  ব্লাউজ থেকে উঁকি মারা বিভাজিকা, পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ ফাটল কি না!]

আর কিছু অতি গুরুত্বপূর্ণ কথা যা ব্যবহারের আগে জেনে নেওয়া বাঞ্ছনীয়। শেপওয়্যার নিয়মিত ধুয়ে ব্যবহার করুন। ড্রাই ক্লিন, ইস্ত্রি, ব্লিচ করা এড়িয়ে চলুন। ৬ থেকে ৮ ঘণ্টার বেশি সময় শেপওয়্যার ব্যবহার করবেন না। কোনও অস্ত্রোপচারের আগে বা পরে অথবা প্রেগন্যান্সির সময় শেপওয়্যার ব্যবহার করবেন না। শেপওয়্যার স্লিমিং ডিভাইস নয়। অর্থাৎ এটি ব্যবহারে মেদমুক্ত হওয়া সম্ভব নয়, শরীরচর্চা বা ডায়েটের বিকল্প বা পরিপূরক নয়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং