১ শ্রাবণ  ১৪২৬  বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হেঁশেলের ঝক্কি এড়ানোর সহজ উপায় এখন সকলের নাগালে। স্মার্টফোনের একটা ক্লিকেই হাতের সামনে চলে আসে মনপসন্দ খাবার। কিন্তু অর্ডার করার পর সেই খাবার এসে পৌঁছাতে বেশ কিছুটা সময় লেগেই যায়। শীঘ্রই সমাধান হতে চলছে এই সমস্যার। দ্রুত খাবার ডেলিভারির জন্য এবার ড্রোন ব্যবহার করবে Zomato। অর্থাৎ, ধরুন মোবাইল অ্যাপে খাবার অর্ডার করেছেন। ১০ মিনিট পর দরজা খুলে দেখলেন একটা আস্ত ড্রোন আপনার বাড়ির বাইরে দাঁড়িয়ে। তাতেই রয়েছে আপনার অর্ডার করা গরম গরম খাবার।

[আরও পড়ুন: এবার অ্যাপ ডাউনলোড করে ফেসবুককে সাহায্য করলেই পাবেন পুরস্কার!]

Zomato-র সিইও দ্বীপেন্দর গয়াল নিজের টুইটারে একটি ভিডিও পোস্ট করেন কয়েকদিন আগে। সেখানে তিনি জানান, একটি ড্রোনের পরীক্ষা করা হয়েছে। ৫ কিলো ওজন নিয়ে মাত্র ১০ মিনিটে ৫ কিলোমিটার উড়ে যেতে সক্ষম এই ড্রোন। সর্বোচ্চ গতিবেগ ৮০ কিমি প্রতি ঘণ্টা। অনেকদিন ধরেই আকাশপথে খাবার ডেলিভারির কথা ভাবছিলেন Zomato কর্তারা। সেই লক্ষ্যে ২০১৮ সালে ‘টেক ইগল’ নামে লখনউ-এর এক ড্রোন নির্মাতা সংস্থাকে কিনে নিয়েছিল Zomato।

[আরও পড়ুন: iphone X-এর স্পিকারে সমস্যা, ব্যবহারকারীকে লক্ষাধিক টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে অ্যাপল]

সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, নতুন এই প্রক্রিয়াতেও আগের মতোই অর্ডার নেওয়া হবে ফোনে। তবে রেস্তরাঁ থেকে অর্ডার নিয়ে নির্দিষ্ট গন্তব্যে উড়ে যাবে ড্রোন। জানা গিয়েছে, ড্রোনের গায়ে একটি বিশেষ বাক্সে থাকবে খাবার রাখার ব্যবস্থা। ড্রোনটি নির্দিষ্ট জায়গায় পৌঁছালে গ্রাহককেই বাক্স থেকে খাবার বের করে নিতে হবে। তবে শহরে এই প্রক্রিয়া শুরুর ক্ষেত্রে বেশ কিছু সমস্যা থেকেই যাচ্ছে। বিমানবন্দরের আশেপাশের অঞ্চলে ড্রোন ওড়ানোর উপর আইনি নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে। তা ছাড়াও নিরাপত্তার কারণেও অনেক জায়গায় প্রয়োজন স্থানীয় প্রশাসনের অনুমোদন। যদিও সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, সবদিক মাথায় রেখেই বানানো হচ্ছে এই ড্রোন। বর্তমানে বাইকে একটি ডেলিভারি-তে Zomato-র ৩০ মিনিট সময় লাগে। এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করতে পারলে ১৫ মিনিটেই আপনার সামনে হাজির হবে মনপসন্দ খাবার। 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং