BREAKING NEWS

৭ মাঘ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২১ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

রসগোল্লা নাকি গুলাব জামুন, ২০২০-তে সেরা কে? কী বলছে অনলাইন খাবার ডেলিভারি সংস্থার রিপোর্ট

Published by: Paramita Paul |    Posted: December 31, 2020 5:02 pm|    Updated: December 31, 2020 5:22 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার দাপটে গৃহবাসেই কেটেছে ২০২০। বাড়িতে বসে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটিয়েছে দেশবাসী। কারোর সময় কেটেছে সুখে তো কারোর বা দুঃখে। তবে ভারতীয়রা যতই ঘরবন্দী থাকুক, তাঁদের খাওয়া-দাওয়ার প্রতি প্রীতি একেবারেই কমেনি! বছর শেষে অনলাইন খাবার ডেলিভারি সংস্থার রিপোর্ট অন্তত তেমনটাই বলছে।

চলতি বছরে ভারতীয়রা সবচেয়ে বেশি কোন খাবার অর্ডার করেছেন জানেন? কিংবা তাঁদের সবচেয়ে পছন্দের মিষ্টিটাই বা কী? জোম্যাটো (Zomato) তাঁদের রিপোর্টে এই সবেরই হাল হকিকত তুলে ধরেছে।

[আরও পড়ুন : করোনা কালে বাইরে যেতে ভয়? রেস্তরাঁর জিভে জল আনা ২ পদ বানান বাড়িতেই, রইল রেসিপি]

তাঁদের রিপোর্ট কার্ড বলছে, ২০২০-তে ভারতীয়রা সবচেয়ে বেশি অর্ডার দিয়েছে বিরিয়ানির। তবে চিকেন বা মাটন নয়, সবচেয়ে বেশিবার ভেজ বিরিয়ানির অর্ডার দেওয়া হয়েছে। হিসেব বলছে, মিনিটে গড়ে ২২টি বিরিয়ানির অর্ডার পেয়েছে এই সংস্থা। বছরে মোট ১৯ লক্ষ ৮৮ হাজার ৪৪টি বিরিয়ানি সরবরাহ করেছেন তাঁরা। মিষ্টির মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্ডার পেয়েছেন গুলাব জামুনের (Gulab Jamun)। শুধুমাত্র দিপাবলির সপ্তাহে ১ লক্ষেরও বেশি এই মিষ্টির অর্ডার পেয়েছে জোম্যাটো।

তাঁদের রিপোর্ট কার্ডে উঠে এসেছে সবচেয়ে বেশি ও কম দামী অর্ডারের গল্পও। অনলাইন খাবার ডেলিভারি করা সংস্থাটি জানাচ্ছে, ২০২০ সালে সর্বোচ্চ ১ লক্ষ ৯৯ হাজার ৯৫০ টাকার অর্ডার পেয়েছেন তাঁরা। সেই গ্রাহককে আবারর ৬৬ হাজার টাকার ছাড়ও দিয়েছিলেন তাঁরা। উল্টোদিকে সর্বনিম্ন ১০ টাকা ১ পয়সার অর্ডারও ডেলিভারি করেছে জোম্যাটো। যদিও সেই গ্রাহক বিশেষ অফারে প্রায় ৪০ টাকা ছাড় পেয়েছিলেন।

[আরও পড়ুন : বছরশেষের সেলিব্রেশনে মন ভরাবে সুস্বাদু খাবার ও উপভোগ্য পানীয়র এই ঠিকানাগুলি]

রিপোর্ট কার্ডে রয়েছে সর্বাধিকবার খাবার অর্ডার দেওয়া গ্রাহকের নামও। বেঙ্গালুরুর এক বাসিন্দা, নাম ইয়াস, সবচেয়ে বেশিবার খাবারের অর্ডার দিয়েছেন। গোটা বছরে তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে ১৩৮০ বার খাবারের অর্ডার করা হয়েছে। গড়ে দিনে চারবার করে অর্ডার করতেন তিনি। সবমিলিয়ে করোনার দিনে দেশবাসীর একাংশ যে খানাপিনায় মজে ছিল তা বলাই যায়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement